ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পুরুষরাও যৌন নিপীড়নের শিকার হন: সুলতানা কামাল


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০২:১৪ পিএম, ২৮ এপ্রিল ২০১৯, রোববার
পুরুষরাও যৌন নিপীড়নের শিকার হন: সুলতানা কামাল

শুধু নারী বা শিশু নয় পুরুষরাও যৌন নিপীড়নের শিকার হন বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল। বিশেষ করে জেলখানা সহ কিছু জায়গায় এমন ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আজ রবিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তার আগে একই সংবাদ সম্মেলনে বেসরকারী চ্যানেল ডিবিসি নিউজের সম্পাদক নবনীতা চৌধুরী এ অভিযোগ আনেন। পরে সুলতানা কামাল তার বক্তব্যে এই কথার সমর্থন করেন।

সুলতানা কামাল বলেন, ‘আমরা অনেকে মনে করি শুধু নারী ও শিশুরা যৌন নিপীড়নের শিকার হয়। কিন্তু পুরুষ পুরুষের দ্বারা নিপীড়নের শিকার হয়ে থাকে। পুরুষ অনেক সময় নারীর দ্বারাও নিপীড়নের শিকার হয়ে থাকে। ব্যাপারটা শুধু পুরুষ ও নারীর নয় ব্যাপারটা ক্ষমতাশালী ও ক্ষমতাহীণের দ্বন্দ্ব।’

ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি নামক একটি সংগঠনের ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুলতানা কামাল। ফেনীতে আগুনে দগ্ধ নিহত নুসরাতকে নিয়ে আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতা উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, ‘বাংলাদেশ অনেক ক্ষেত্রে এগিয়ে গেছে। বিশ্বের বিভিন্ন ফোরামে বাংলাদেশ আজ প্রশংসিত রাষ্ট্র। আমাদের প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেত্রী নারী। জাতীয় সংসদের স্পিকার নারী। কিন্তু তবু নারীর প্রতি সহিংসতা কমেনি।’

ক্ষোভের সঙ্গে সুলতানা কামাল বলেন, ‘যারা নারী প্রতি সহিংশতায় জড়িত আমি মনে করি তারা অশিক্ষিত ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডবিহীন পরিবার থেকে আসে। পরিবারে যারা সুশিক্ষা পায় তারা কখনোই নিপীড়নের সঙ্গে জড়িত হবে না, হতে পারে না।’

মানবাধিকার নেত্রী সুলতানা কামাল এসময় অভিযোগ করে বলেন, ‘আমাদের পোশাক শিল্পে আগে আশি ভাগ নারী কাজ করত। এখন তা তেষট্টি শতাংশে নেমে এসেছে। তার কারণ যৌন নিপীড়ন। গার্মেন্টসগুলোতে প্রতিনিয়ত নারীরা নানাভাবে যৌনহেনস্থার শিকার হয়ে থাকে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে তারা নানা সামাজিক কারণে মুখ বুঁজে থাকে ও পরে চাকরী ছেড়ে দেয়। এ অবস্থা চলতে থাকলে আমাদের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্থ হবে।’

অমৃতবাজার/পিকে