ঢাকা, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯ | ২ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শ্রীলঙ্কার দুরন্ত সূচনার পরও অস্ট্রেলিয়ার সহজ জয়


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩৯ পিএম, ১৫ জুন ২০১৯, শনিবার
শ্রীলঙ্কার দুরন্ত সূচনার পরও অস্ট্রেলিয়ার সহজ জয়

 

ব্যাটিংয়ে ও বোলিংয়ে রাজত্ব করে শ্রীলঙ্কাকে সহজে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠেছে অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ৩৩৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উড়ন্ত সূচনা শ্রীলঙ্কার। দুই ওপেনারের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরীতে জয়ের বন্দরে এক পা দিয়েই রেখেছিল। তারপর দিমুথ করুনারত্নের ব্যাটিং তাণ্ডবে প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল জয়ী দলের নাম। আশার আলোটা প্রায় নিভে যায় যখন হতাশ হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় করুনারত্নেকে। কেন রিচার্ডসনের গতির বলে গ্ল্যান ম্যাক্সওয়েলের অসাধারণ ক্যাচে পরিণত হন করুনারত্নে। সাজঘরে ফেরার আগে ১০৮ বলে ৯টি চারের সাহায্যে ৯৭ রান করেন তিনি।

পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। তিনি ফেরেন মাত্র ৯ রানে। রানের খাতা খুলতে না খুলতেই আউট হন শ্রীবর্ধনে।

ছক্কা হাঁকিয়ে ইনিংস শুরু করেও বেশি দূর যেতে পারেননি থিসেরা পেরারা। মাত্র ৭ রানে ফেরেন তিনি। তার বিদায়ের মধ্য দিয়ে ৩৭ ওভারে ২১৭ রানে ৬ উইকেট হারায় শ্রীলংকা।

এরপর থেকেই ম্যাচের ভাগ্য অনেকটা অস্ট্রেলিয়ার দিকেই গড়াতে থাকে। সবশেষে কুশল মেন্ডিসের ৩৭ বলে ২ ছয়ে ৩০ রানে ম্যাচ জমিয়ে তুললেলও শেষ পর্যন্ত আর পারেনি লঙ্কানরা। ২৫ বল হাতে থাকতেই সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৪৭ রান করে ৮৭ রানের অসহায় আত্মসমর্পণ করে করুনারত্ন বাহিনী।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ সতর্ক ব্যাটিং ও স্মিথ-ম্যাক্সওয়েলের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সাত উইকেটে ৩৩৪ রান সংগ্রহ করে অসিরা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। ১৩২ বলে ৫ ছয় ও ১৫ চারে ১৫৩ রান করেন তিনি। এছাড়া স্টিভেন স্মিথ করেন ৫৯ বলে ৭৩ রান। তার ইনিংসটি ছিল ৭টি চার ও একটি ছক্কায় সাজানো। ডেভিড ওয়ার্নার ৪৮ বলে ২৬ রান ও ২৫ বলে ১ ছয় ও ৫ চারে ৪৬ রান করেন ম্যাক্সওয়েল।

শুরুতে দেখেশুনে খেলতে থাকা অস্ট্রেলিয়ার প্রথম উইকেটের পতন হয় দলীয় ৮০ রানের মাথায়। ব্যক্তিগত ২৬ রান করে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার বলে বোল্ড আউট হন ডেভিড ওয়ার্নার। তার জায়গায় আসা উসমান খাজাও বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারেননি অধিনায়ক ফিঞ্চকে। ব্যক্তিগত ১০ রানে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার দ্বিতীয় শিকার হন এই ব্যাটসম্যান।

তৃতীয় উইকেটে লঙ্কানদের আশাকে হতাশায় রূপ দেন ফিঞ্চ আর স্টিভেন স্মিথ। অবশেষে ইনিংসের ৪৩তম ওভারে এসে ভয়ংকর ফিঞ্চকে ফেরান উদানা। ফিঞ্চ ফেরার পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি জুটির আরেক সঙ্গী স্মিথ। ঠিক পরের ওভারেই ৫৯ বলে ৭ চার আর ১ ছক্কায় ৭৩ রান করা এই ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করেন লাসিথ মালিঙ্গা।

এরপর ৩ রানে উদানার শিকার শন মার্শ। রানআউটের কবলে পড়েন অ্যালেক্স কারে (৪) আর প্যাট কামিন্স (০)। অস্ট্রেলিয়া অল্প সময়ের ব্যবধানে বেশ কয়েকটি উইকেট হারিয়ে বসে। তবে এরই মধ্যে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ঠিকই খেলে দিয়েছেন ঝড়ো এক ইনিংস। ২৫ বলে ৫ চার আর ১ ছক্কায় ৪৬ রানে অপরাজিত থাকেন এই অলরাউন্ডার।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে ২টি করে উইকেট নেন ইসুরু উদানা আর ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ৩৩৪/৭ (ওয়ার্নার ২৬, ফিঞ্চ ১৫৩, খাওয়াজা ১০, স্মিথ ৭৩, ম্যাক্সওয়েল ৪৬*, মার্শ ৩, কেয়ারি ৪, কামিন্স ০, স্টার্ক ৫*; মালিঙ্গা ১০-১-৬১-১, প্রদিপ ১০-০-৮৮-০, উদানা ১০-০-৫৭-২, থিসারা ১০-০-৬৭-০, ডি সিলভা ৮-০-৪০-২, সিরিবর্দনা ২-০-১৭-০)

শ্রীলঙ্কা: ৪৫.৫ ওভারে ২৪৭ (করুনারত্নে ৯৭, কুসল পেরেরা ৫২, থিরিমান্নে ১৬, মেন্ডিস ৩০, ম্যাথিউস ৯, সিরিবর্দনা ৩, থিসারা ৭, ডি সিলভা ১৬*, উদানা ৮, মালিঙ্গা ১, প্রদিপ ০; স্টার্ক ১০-০-৫৫-৪, কামিন্স ৭.৫-০-৩৮-২, বেহরেনডর্ফ ৯-০-৫৯-১, রিচার্ডসন ৯-১-৪৭-৩, ম্যাক্সওয়েল ১০-০-৪৬-০)

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৮৭ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: অ্যারন ফিঞ্চ

অমৃতবাজার/এএস