ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ডের ফাইনাল সম্ভাবনা নিয়ে রসিকতা গিলক্রিস্টের!


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৪:৩৯ পিএম, ২২ মে ২০১৯, বুধবার
ইংল্যান্ডের ফাইনাল সম্ভাবনা নিয়ে রসিকতা গিলক্রিস্টের!

ক্রিকেটে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলে আসছে যুগ যুগ ধরে। এক অ্যাশেজ সিরিজের উত্তাপই হার মানায় অন্য যেকোনো কিছুকে। এর সঙ্গে এবার যোগ হয়েছে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। যেখানে মাঠের খেলা শুরুর আগে, মাঠের বাইরে চলছে কথার লড়াই।

স্বাগতিক দেশের ইংল্যান্ডের বিখ্যাত সমর্থকগোষ্ঠি ‘বার্মি আর্মি’ এরই মধ্যে অদ্ভুত সব আয়োজন করে রেখেছে অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের জ্বালিয়ে মারার জন্য। তাদের জবাবে পিছিয়ে নেই অস্ট্রেলিয়ানরাও। দেশটির সাবেক তারকা ক্রিকেটার অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ইংলিশদের বিশ্বকাপ সম্ভাবনাকে তুলনা করেছেন ধ্বংসস্তুপের সঙ্গে।

গত বিশ্বকাপের পর থেকেই ওয়ানডে ক্রিকেটে দুর্দান্ত খেলছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। পাকিস্তানের বিপক্ষে সদ্যসমাপ্ত সিরিজের চার ম্যাচে টানা ৩৪০+ রানের স্কোর করে গড়েছে বিশ্বরেকর্ড। তাই এবারের বিশ্বকাপে তাদেরকেই ধরা হচ্ছে হট ফেবারিট। কিন্তু এটি মানতে আপত্তি গিলক্রিস্টের। তার মতে সেমিফাইনালেই ধংসস্তুপে পরিণত হবে ইংলিশরা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে গিলক্রিস্ট কথা বলছিলেন আসন্ন বিশ্বকাপের ব্যাপারে। যেখানে তাকে জিজ্ঞেস করা হয় আপনার কী মনে হয়, কে জিতবে বিশ্বকাপ? একমুহূর্ত ভেবে গিলক্রিস্টের জবাব, ‘আমি মনে করি...অস্ট্রেলিয়া।’

কেনো? ব্যাখ্যাসহ গিলির উত্তর, ‘কারণ কাগজে-কলমে সন্দেহাতীতভাবেই অন্যান্য সেরা দলগুলোর মতোই বিশ্বকাপের ফেবারিটের তালিকায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার নাম। বর্তমান দলের খেলোয়াড়রাও নিজেদের সেভাবেই গুছিয়ে ফেলেছে, দলে তারকা খেলোয়াড়ও রয়েছে অনেক।’

তিনি বলতে থাকেন, ‘বিশ্বকাপের উদ্দেশ্যে অস্ট্রেলিয়া ছাড়ার পর থেকে একটা ভারসাম্য পেয়ে গেছে দলটি। তারা ভারতে সিরিজ জিতেছে, পাকিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলেছে। আমার যা মনে হচ্ছে, সেটাই বললাম। গত এগারোবারের মধ্যে পাঁচবারই এ দেশে এসেছে বিশ্বকাপ শিরোপা। তাই এ বিশ্বকাপে আমাদের না জেতার কোনো কারণ...’

এ কথাটি শেষ করার আগেই পেছন থেকে শোনা যায় কোনোকিছু পড়ে যাওয়ার বিকট শব্দ। যা চলতে থাকে প্রায় ৩-৪ সেকেন্ড ধরে। শব্দ থামার পরেই দেখা মেলে গিলক্রিস্টের আমুদে রূপের। তিনি বলেন, ‘এটা (বিকট শব্দ) সত্যিই ধ্বংসাত্মক ছিলো। আসলে এটা সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের চিত্র ছিলো (অট্টহাসি)।’

অমৃতবাজার/পিকে