ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ভারতের বিশ্বকাপ জার্সিতে ভিন্নধর্মী প্রযুক্তি


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:১৬ পিএম, ১৯ মে ২০১৯, রোববার
ভারতের বিশ্বকাপ জার্সিতে ভিন্নধর্মী প্রযুক্তি

দিন দশেক পর মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্বকাপ ক্রিকেট। নিজেদের শেষ প্রস্তুতি সারছে অংশগ্রহণকারী দলগুলো। এই লম্বা সফরে খেলার সঙ্গে নিজেদের ফিট রাখতে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছেন  ক্রিকেটাররা। সেক্ষেত্রে প্রযুক্তির ছোঁয়ায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে ভারত। মাঠে ক্রিকেটারদের নিখুঁত বিশ্লেষণের জন্য জার্সিতে ‘ভেস্ট’ নামক প্রযুক্তির ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। 

ক্রিকেটে প্রথম দল হিসেবে ভারতই ভিন্নধর্মী এই  প্রযুক্তি নিয়ে মাঠে নামবে। তবে বিভিন্ন ফুটবল ক্লাবগুলো আগে থেকেই জার্সিতে এই প্রযুক্তির ব্যবহার করছে।

‘ভেস্ট’ এমন একটি উচ্চ রেজুলেশনসম্পন্ন প্রযুক্তি যার মাধ্যমে মাঠে ক্রিকেটারদের চলাফেরার গতি বিশ্লষণ করা যাবে। অর্থাৎ মাঠে ক্রিকেটাররা কতটা পরিশ্রম করছেন, তাঁদের ওপর কতটা চাপ পড়ছে বা ক্রিকেটারদের শরীর কতটা সাড়া দিচ্ছে— এসব ভেস্টের মাধ্যমে নির্ণয় করা যাবে। এই যন্ত্র থেকে যে পরিসংখ্যান পাওয়া যাবে সেটি কাজে লাগিয়ে ক্রিকেটারদের ওপর থেকে বাড়তি চাপ কমানো সম্ভব হবে। চোটের প্রবণতাও কমানো যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক স্ট্যাটস্পোটর্স নামক একটি প্রতিষ্ঠান ভারতীয় দলের জার্সিতে এই প্রযুক্তি সরবরাহের দায়িত্ব নিয়েছে। ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি সেরেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

নতুন এই প্রযুক্তির ব্যবহার প্রসঙ্গে স্ট্যাটস্পোর্টসের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ব্যবস্থাপক পঙ্কজ ওয়াংখেড়ে বলেন, ‘ক্রিকেট খেলায় শারীরিক পরিশ্রম অনেক। আমাদের প্রযুক্তি (জিপিএস) খেলোয়াড়দের ফিটনেসের মান পর্যবেক্ষণ করবে। এ ছাড়া খেলোয়াড়দের দৌড়ের গতি, শারীরিক কিংবা মানসিক চাপ নেওয়ার পরিমাণও পরিমাপ করা যাবে। ট্রেনার ও ফিজিওরা এসব তথ্য থেকে খেলোয়াড়দের ফিটনেসের মান নির্ণয়ের সঙ্গে চোট পাওয়া খেলোয়াড়দের সঠিক পুনর্বাসনের ব্যবস্থাও করতে পারবেন। ভারতের খেলোয়াড়রা এ প্রযুক্তির সঙ্গে পরিচিত এবং গত ডিসেম্বরেই এটা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। জার্সির নিচে এই ভেস্ট পরতে হয়।’

অমৃতবাজার/পিকে