ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পাক-ভারত মহারণে, স্ত্রী-বান্ধবীকে কাছে রাখতে পারবেন না কোহলিরা


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৩:০৮ পিএম, ১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার
পাক-ভারত মহারণে, স্ত্রী-বান্ধবীকে কাছে রাখতে পারবেন না কোহলিরা

ক্রিকেটারদের স্ত্রী ও বান্ধবীদের আসন্ন বিশ্বকাপে উপস্থিত থাকার ব্যাপারে কিছু বিধি নিষেধ জারি করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। ভারতের প্রথম ম্যাচের ২১ দিন পর ক্রিকেটারদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন তাদের স্ত্রী ও বান্ধবীরা। থাকতে পারবেন আগামী ১৫ দিন।

বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ১৬ জুন। বোর্ডের নিয়মের জেরে সেই ম্যাচে গ্যালারিতে থাকতে পারবেন না আনুশকা শর্মা।

দুই বছর আগে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে ভারতের হারের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল, আনুশকা শর্মা গ্যালারিতে উপস্থিত থাকার কারণেই হেরেছে ভারত। শুধু তাই নয়, চার বছর আগে ২০১৫ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিল ভারত। তখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের আক্রমণের বিষয়বস্তু ছিলেন আনুশকা শর্মা।

এবারও কি তাহলে এমন হতে যাচ্ছে? অর্থ্যাৎ, গ্যালারিতে থাকবেন আনুশকা শর্মা আর মাঠে হারবেন বিরাট কোহলিরা? সোশ্যাল মিডিয়া এমন কোনো বিষয় নিয়ে উত্তপ্ত হওয়ার আগেই কিন্তু এক ধরনের নিষেধাজ্ঞা চলে আসলো আনুশকার ওপর। শুধু আনুশকাকে একা বললে ভুল বলা হবে। ভারতীয় ক্রিকেটারদের স্ত্রী কিংবা বান্ধবীদের ওপর আরোপ করা হয়েছে এই নিষেধাজ্ঞা। 

মূলতঃ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই বিরাট কোহলিদের ওপর বিশ্বকাপে স্ত্রী কিংবা বান্ধবীদের রাখার ব্যাপারে আংশিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। অর্থ্যাৎ, বিশ্বকাপ শুরুর ২১দিন পর কোহলিদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন তাদের স্ত্রী কিংবা পরিবারের সদস্যরা। থাকতে পারবেন কেবল ১৫দিন।

এর অর্থ, ১৬ জুন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে পাকিস্তানের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ এবং শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচের দিন গ্যালারিতে উপস্থিত থাকতে পারছেন না আনুশকা শর্মাসহ ক্রিকেটারদের স্ত্রী এবং বান্ধবীরা। 

ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে দুই নম্বরে থাকা ভারত এর আগে দু’বার বিশ্বকাপ জিতেছিল। ২০১১ এবং ১৯৮৩ সালে। এবার বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ভারতকেই অনেকে রেখেছেন ফেবারিটের তালিকায়।

অমৃতবাজার/পিকে