ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চমকে ভরপুর শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ দল


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার
চমকে ভরপুর শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ দল

আইসিসি বিশ্বকাপের ১২তম আসরের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করলো শ্রীলঙ্কা। দলের নিয়মিত অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গার দলে না থাকার খবর ভাসলেও বিশ্বকাপ দলে তার নাম ঠিকই রয়েছে। অবশ্য অধিনায়কত্বটাই শুধু কেড়ে নেয়া হয়েছে।

এই দলের অধিনায়কের নাম গতকালই ঘোষাণা করা হয়। বিশ্বকাপের মঞ্চে দলকে নেতৃত্ব দেবেন টেস্ট দলপতি দিমুথ করুনারত্নে। দিমুথ করুনারত্নে সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ২০১৫ সালের ১ মার্চ।

তবে সম্প্রতি মাতাল হয়ে মোটরবাইক চালিয়ে এক পথচারীকে আহত করেছিলেন তিনি। এতে জরিমানাও গুনতে হয় তাকে। সেই বিতর্কিত ক্রিকেটারকেই অধিনায়ক করাই চটে যান মালিঙ্গা। বিশ্বকাপ খেলবেন না বলেও টুইটে বার্তা দেন।

মালিঙ্গার অধিনায়কত্বে নয়টি ওয়ানডের সবকটিতেই হেরেছেন লংকানরা। সবশেষ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হন তারা। এসবকিছু বিবেচনা করেই তাকে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে বোর্ড।

এছাড়াও বিশ্বকাপ স্কোয়াডে দলে জায়গা পেয়েছেন ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নে, স্পিন-অলরাউন্ডার মিলিন্দা সিরিবর্দনে ও জীবন মেন্ডিস এবং লেগস্পিনার জেফ্রে ভ্যান্দেরসে। এদের মধ্যে থিরিমান্নে, সিরিবর্দনে ও ভ্যান্দেরসে সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ২০১৭ সালে। আর জীবন মেন্ডিস সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচে খেলেন ২০১৫ সালে।

অথচ দলে সুযোগ পাননি সাম্প্রতিক সময়ে দলের হয়ে নিয়মিত খেলে আসা দিনেশ চান্দিমাল, উপুল থারাঙ্গা, নিরোশান ডিকওয়েলা, আকিলা ধনঞ্জয়া ও দানুশকা গুনাথিলাকাদের মতো তারকা ক্রিকেটাররা।

দলে জায়গা পেয়েছেন ২১ বছর বয়সী ওপেনিং ব্যাটসম্যান অভিশকা ফার্নান্দো। দলের অনিয়মিত খেলোয়াড় পেসার নুয়ান প্রদ্বীপও আছেন।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে আইসিসি বিশ্বকাপের ১২তম আসর অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ মে-১৪ জুলাই। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার প্রথম ম্যাচ ১ জুন। এদিন কার্ডিফে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে তারা।

শ্রীলঙ্কার ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ স্কোয়াড:

দিমুথ করুণারত্নে (অধিনায়ক), লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, থিসারা পেরেরা, কুসল পেরেরা, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, কুসল মেন্ডিস, ইসুরু উদানা, মিলিন্দা সিরিবর্দনে, অভিশকা ফার্নান্দো, জীবন মেন্ডিস, লাহিরু থিরিমান্নে, জেফ্রে ভ্যান্দেরসে, নুয়ান প্রদ্বীপ, সুরঙ্গা লাকমল।

অমৃতবাজার/এএস