ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দলে স্মিথ-ওয়ার্নার


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০২:২২ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার
অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দলে স্মিথ-ওয়ার্নার

পিটার হ্যান্ডসকম্বের কপাল খারাপ বলতেই হবে। কারণ, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে শেষ ১৩ ম্যাচে একটি সেঞ্চুরি ও তিনটি হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে প্রায় ৪৪ গড় আর ৯৯ স্ট্রাইক রেট নিয়ে ৫৬৭ রান করা হ্যান্ডসকম্বকে কেন বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়তে হবে? কিন্তু তাঁকে বাদ না দিয়েও যে হচ্ছিল না! তর্কাতীতভাবে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় দুই তারকা ডেভিড ওয়ার্নার আর স্টিভেন স্মিথ যেহেতু দলে ফিরছেন, টপ অর্ডারের কাউকে না কাউকে বাদ দিতেই হতো। তাই একরকম বলির পাঁঠাই হলেন হ্যান্ডসকম্ব। অস্ট্রেলিয়ার ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ দলে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরত আসা ওয়ার্নার-স্মিথকে জায়গা করে দেওয়ার জন্য বাদ পড়তে হলো হ্যান্ডসকম্বকে।

গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার কেপটাউন টেস্টে বল বিকৃতির ঘটনা ঘটে। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে দেখা যায় হলুদ টেপ-জাতীয় কিছু হাতে নিয়ে বল ঘষতে। পুরো ব্যাপার ধরা পড়ে টেলিভিশন ক্যামেরায়। পরে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ এক চাঞ্চল্যকর সংবাদ সম্মেলনে স্বীকার করেন বল বিকৃতির পরিকল্পনার কথা। বিষয়টি আলোড়ন তুলেছিল গোটা ক্রিকেট দুনিয়ায়। তারই জের ধরে স্মিথ ও ওয়ার্নারকে এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সেই নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে মার্চ মাসে। ঠিক বিশ্বকাপের আগ দিয়ে এই দুজনের নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় অস্ট্রেলীয় নির্বাচকেরা তাঁদের বিশ্বকাপ দলে না নেওয়ার ভুল করেনি।

ওদিকে হ্যান্ডসকম্ব ছাড়াও উল্লেখযোগ্য অস্ট্রেলীয় তারকাদের মধ্যে বাদ পড়েছেন পেসার জশ হ্যাজলউড। জানুয়ারি থেকে পিঠের চোট ভোগাচ্ছে হ্যাজলউডকে, তাই তাঁর বাদ পড়াটা প্রত্যাশিতই ছিল। ফলে, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে গত ১৩ ওয়ানডেতে না খেলা মিচেল স্টার্কের কপাল খুলে গেছে। স্টার্ক ছাড়াও দলের পেস আক্রমণ সামলানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ঝাই রিচার্ডসন, প্যাট কামিন্স, জেসন বেহেরেনডর্ফ ও নাথান কোল্টার-নাইলকে। দলে নেওয়া হয়নি ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ঝড় তোলা ব্যাটসম্যান অ্যাশটন টার্নারকেও।

দলে একমাত্র উইকেটরক্ষক হিসেবে নেওয়া হয়েছে অ্যালেক্স ক্যারিকে। কোনো কারণে ক্যারি চোটে পড়লে কে অস্ট্রেলিয়ার উইকেটরক্ষক হবেন, সে প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে। স্মিথ-ওয়ার্নারকে ফেরানো হলেও সাবেক অধিনায়ক স্মিথ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক থাকছেন না। এক বছর ধরে নেতৃত্ব দেওয়া অ্যারন ফিঞ্চই থাকছেন অধিনায়ক হিসেবে।

১ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দল: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, উসমান খাজা, শন মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কাস স্টোইনিস, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটরক্ষক), অ্যাডাম জাম্পা, নাথান লায়ন, জেসন বেহেরেনডর্ফ, নাথান কোল্টার-নাইল, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, ঝাই রিচার্ডসন।

অমৃতবাজার/পিকে