ঢাকা, রোববার, ২১ অক্টোবর ২০১৮ | ৬ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাশিয়ায় ফরাসি বিপ্লব


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:০৮ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৮, রোববার
রাশিয়ায় ফরাসি বিপ্লব

ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ হারিয়ে ২০১৮ বিশ্বকাপ জিতে নিল গ্রিজমান-এমবাপ্পেরা ৷ ১৯৯৮-এর পর আবারো বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হল ফ্রান্স। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে ক্যাপ্টেন হিসেবে ফ্রান্সকে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন করেছিলেন দিদিয়ের দেশম। ২০ বছর পর কোচ হিসেবে দেশকে বিশ্বকাপ এনে দিলেন সেই দেশম। সেই সঙ্গে জার্মান কিংবদন্তি ফ্রাঙ্ক বেকেনবাউয়ারকে ছুলেন দেশম।

মস্কোর লুঝনিকিতে ম্যাচের ১৮ মিনিটের মাথায় তার আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে ক্রোয়েশিয়া। বিশ্বকাপ ফাইনাল এর আগে আত্মঘাতি গোলের নজির নেই। কিন্তু মানজুকিচ সেই বৃত্তটা পূরণ করলেন। চিন্তায় ফেলে দিলেন পুরো ক্রোয়েশিয়াকে। কারণ এর আগে আট বিশ্বকাপে যারা প্রথমে গোল করেছে তারাই শিরোপা উৎসব করেছে।

এরপর ২৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক গোল করে ইনজুরির কারণে অনিশ্চিত থাকা পেরিসিচ ক্রোয়েশিয়া স্ট্রাইকারের সেই আত্মঘাতি গোলের দায় ঘোচান। দলকে এনে দেন ভরসা। তার গোলে ১-১ গোলের সমতায় ফেরে ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু সে স্বস্তি ১০ মিনিটের বেশি রাখতে পারলো না ক্রোয়াটরা। আবার গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়ে তারা।

ম্যাচের ৩৮ মিনিটে মানজুকিচের দায় মেটানো পেরিসিচ এবার নিজেই দায়বদ্ধ হয়ে পড়েন। ক্রোয়াট ফরোয়ার্ড ফ্রান্সের নেওয়া কর্ণার কিক বিদপমুক্ত করতে গিয়ে বক্সের মধ্যে হাতে বল লাগিয়ে বসেন। ভিডিও রেফারির সাহায্য নিয়ে রেফারি পেনাল্টি উপহার দেন ফ্রান্সকে। সেট পিস থেকে গোল করতে ভুল করেননি ফ্রান্স তারকা গ্রিজম্যান।

বিশ্বকাপে তিনি চার গোল করে ফেলেছেন। তার মধ্যে তিনটিই পেনাল্টি থেকে। তাতে ২-১ গোলে আবার এগিয়ে যায় ফ্রান্স। ওই লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে ফ্রান্স। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮ মিনিটে পগবার দারুণ গোলে ৩-১ গোলের লিড নেয় ফ্রান্স। ম্যাচের ৬৫ মিনিটে চোখ ধাঁধাঁনো গোল করেন ফ্রান্সের তরুণ তারকা এমবাপ্পে। তার গোলে ৪-১ গোলের লিড নেয় ফ্রান্স। কিন্তু ম্যাচের ৭১ মিনিটের মাথায় ফ্রান্স গোলরক্ষক হুগো লরিসের ভুলে ব্যবধান কমিয়ে ৪-২ করে ক্রোয়েশিয়া।

এরপর জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে খেললেও আর গোলের দেখা পায়নি ক্রোয়েশিয়া। ফলে প্রথমবারের মতো শিরোপার খুব কাছাকাছি এসেও খালি হাতে বিদায় নিতো হলে ক্রোটদের।

অমৃতবাজার/সুজন