ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি ২০১৮ | ৩ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

রোহিতের ডাবল-সেঞ্চুরি, সিরিজ সমতায় ভারত


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:১৯ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭, বুধবার
রোহিতের ডাবল-সেঞ্চুরি, সিরিজ সমতায় ভারত রোহিত শর্মা তৃতীয় ডাবল-সেঞ্চুরির পথে

ওয়ানডে ক্রিকেটে সপ্তম ও রোহিত শর্মার তৃতীয় ডাবল-সেঞ্চুরিতে মোহালিতে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে শ্রীলংকাকে ১৪১ রানের বড় ব্যবধানে হারালো স্বাগতিক ভারত। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা আনলো টিম ইন্ডিয়া। ১৫৩ বলে ২০৮ রানে অপরাজিত থাকেন রোহিত।

ধর্মশালায় সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ৭ উইকেটের বিশাল জয় পায় শ্রীলংকা। তাই মোহালিতে আজও রান চেজের জন্য টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় লংকানরা। ব্যাটিং-এর নেমে ১২৭ বলে দলকে ১১৫ রানের সূচনা এনে দেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। এই নিয়ে ওয়ানডেতে দ্বাদশবারের মত জুটিতে সেঞ্চুরি করলেন রোহিত ও ধাওয়ান। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৩তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৬৭ বলে ৬৮ রান করে থামেন ধাওয়ান।

এরপর তরুন শ্রেয়াস আইয়ারকে নিয়ে দলের স্কোর বড় করতে থাকেন রোহিত। আগের ম্যাচেই অভিষেক হওয়া আইয়ার অধিনায়ককে সঙ্গটা ভালোই দিয়েছেন। তাই দলীয় স্কোর ২শ’র পর ৩শও স্পর্শ করে। এরমাঝে ভারতের ইনিংসের ৩৯তম ওভারের তৃতীয় বলে ক্যারিয়ারের ১৬তম ও অধিনায়ক হিসেবে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ পান রোহিত।

এরপর মাত্র ১৮ বল মোকাবেলা করে পূরণ করেন নিজের দেড়শ রান। আর পরের ৫০ রানও যোগ করতে ১৮ বল মোকাবেলা করেন তিনি। ১৫১তম বলে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ডাবল-সেঞ্চুরি পেয়ে যান রোহিত। শেষ পর্যন্ত ১৩টি চার ও ১২টি ছক্কায় অপরাজিত ২০৮ রান করেন ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের বিশ্বরেকর্ডের মালিক রোহিত।

এর আগে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ওয়ানডেতে ডাবল-সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে কলকাতায় শ্রীলংকার বিপক্ষে ডাবল-সেঞ্চুরি তুলে ২৬৪ রান করেন রোহিত। যা ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড।

রোহিতের তৃতীয় ডাবল-সেঞ্চুরির ইনিংসে ৭০ বলে ৮৮ রানে ফিরেন আইয়ার। দ্বিতীয় উইকেটে ১৪৬ বল মোকাবেলা করে ২১৩ রান যোগ করেন রোহিত-আইয়ার। ফলে ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩৯২ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় ভারত। এই নিয়ে শততম বারের মত ওয়ানডেতে ৩শ বা তার বেশি দলীয় সংগ্রহ পেল ভারত।

জয়ের জন্য ৩৯৩ রানের টার্গেটে শুরু থেকেই ব্যাকফুটে চলে যায় শ্রীলংকা। ৩০ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে সফরকারীরা। হারিয়ে ফেলা লক্ষ্যে আর ফিরতে পারেনি লংকান ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায়।

একমাত্র ব্যতিক্রম ছিলেন সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। সতীর্থদের যাওয়ার মাঝেও এক প্রান্ত আগলে ১৯৪ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেঞ্চুরির স্বাদ নেন ম্যাথুজ। ২০০৮ সালের নভেম্বরে ওয়ানডে অভিষেকের পর ২০১৪ সালের নভেম্বরে রাঞ্চিতে ভারতের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছিলেন তিনি। আর ম্যাথুজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটিও আসলো ভারতের বিপক্ষে।

শেষ পর্যন্ত ম্যাথুজের অপরাজিত ১১১ রানের কল্যাণে হারের ব্যবধানে কমিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৫১ রান তোলে শ্রীলংকা। ৯টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৩২ বল মোকাবেলায় নিজের ইনিংসটি সাজান লংকান সাবেক এই দলপতি। ভারতের পক্ষে যুজবেন্দ্রা চাহাল ৩টি উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

আগামী ১৭ ডিসেম্বর বিশাখাপত্তমে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ভারত : ৩৯২/৪, ৫০ ওভার (রোহিত ২০৮*, আইয়ার ৮৮*, পেরেরা ৩/৮০)।
শ্রীলংকা : ২৫১/৪, ৫০ ওভার (ম্যাথুজ ১১১*, গুনারতেœ ৩৪, চাহাল ৩/৬০)।
ফল : ভারত ১৪১ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : রোহিত শর্মা (ভারত)।
সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা।

অমৃতবাজার/সাজিদ

Loading...