ঢাকা, রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

মাদকের বিরুদ্ধে যশোর ডিবি’র ওসি’র খোলা চিঠি


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ২০ মে ২০১৭, শনিবার | আপডেট: ০৪:৩১ পিএম, ২০ মে ২০১৭, শনিবার
মাদকের বিরুদ্ধে যশোর ডিবি’র ওসি’র খোলা চিঠি

প্রিয় যশোর,

সুপ্রিয় যশোরবাসী, নন্দিত সাংবাদিকবৃন্দ, যশোরের সর্বস্তরের নাগরিক সালাম ও শুভেচ্ছা। যশোর জেলার ভৌগলিক অবস্থান ও সহজলভ্য সুযোগ থাকার কারণে মাদকদ্রব্য অবাধে বিক্রি ও সেবন চলছে। অনেকেই সুবিধা দেওয়ার বিনিময়ে ফেনসিডিল, ইয়াবা, গাজা দেওয়ার শর্ত দেয় মাদকসেবীদের।

তাদের মধ্যে ফেনসিডিল খাওয়ার হার- ৮০% (উচ্চ,মধ্যে,নিম্ন বিত্ত), গাঁজা- ১০% (উচ্চ, নিম্ন বিত্ত), ইয়াবা (সব বয়সীদের মধ্যে) ছাত্র, যুবক বেশি। সাধারণ মানুষের কাছে ভদ্রলোক বলে পরিচিত যারা তারাও ইয়াবাসেবী হয় বেশি। পুলিশের নিকট এ বিষয়ে তথ্য থাকে। কারণ বিভিন্ন পর্যায়ের পুলিশের সোর্স থাকে।

মাদক নির্মূলে জেলা গোয়েন্দা শাখা যশোর ১০০% বিশ্বস্ততার সাথে এবং আইনগতভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ভুল হয়ে যেতে পারে। কিন্তু যখন কোন সংবাদপত্রে লেখা হয়, ইয়াবা ব্যবসায়ী আটক করেছে এবং তার পকেটে থাকা ২ লাখ টাকা নিয়েছে বা নাম করা ইয়াবা ব্যবসায়ীকে চোরাই সোনা ব্যবসায়ী আটক বলে সংবাদ প্রকাশ হয় তখন পুলিশ হতাশ হয়। কারণ মাদক ব্যবসায়ীরা কৌশল করে এমন অপপ্রচার দিবে যেন পুলিশ যেন আর তাদের না ধরে।

এই কৌশল যদি সংবাদপত্রের লিড হয় আর সেটা যদি মিথ্যা হয় তাহলে সে সংবাদে অর্থ কি?

অনেক মাদক মামলার আসামীদের বক্তব্য যদি সংবাদপত্রে হেডলাইন হয় তাহলে যারা মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আছে তাদের পতন হবে এবং তারা এ কাজ আর করবে না।

জেলা গোয়েন্দা শাখা যশোর সঠিক ভাবে মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করছে। দরকার শুভশক্তির সাহায্য। আমাদের যাচাই বাছাই না করে বক্তব্য না নিয়ে ভুল তথ্য প্রচার করে মাদককে উৎসাহিত করা হচ্ছে বলে মনে করি। দুই একজন এ কাজ করছেন তাদের বিচার যশোরবাসী করবেন বলে আশা করি।

আবারও যশোরের মানুষের কাছে প্রার্থনা, আমরা ডিবি পুলিশ আপনাদের জন্য সময় শুধু আপনাদের, নিজেদের হওয়ার।

সবার হয়ত পড়ার সময়ই হবে না, তবু আশা মরে নাই মরে নাই, পড়ে নাই পড়ে নাই।

যশোর ডিবি’র অফিসার ইনচার্জ ইমাউল হক’র ফেসবুক থেকে নেওয়া

অমৃতবাজার/রেজওয়ান

 

Loading...