ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০ | ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৫জি ও এআইওটি-র জগতে রিয়েলমি


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৫:৫৪ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০২০, সোমবার
৫জি ও এআইওটি-র জগতে রিয়েলমি

বর্তমান সময়ে তথ্য প্রযুক্তি খাতের উন্নতির পাশাপাশি তথ্য আদান-প্রদানে দ্রুততার দিকেও জোর দেয়া হচ্ছে। আর সে লক্ষ্যে টেলিকমিউনিকেশন সেক্টর ৫জি নেটওয়ার্কিং এর ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে। আপাতত গুটিকয়েক কোম্পানি অল্প কিছু দেশে ৫জি নিয়ে কাজ করলেও অতি শীঘ্রই অন্যান্য দেশগুলো ৫জি সেবা গ্রহণ করতে শুরু করবে। সকলের এই চাহিদাকে বাস্তবে রুপ দিতে ট্রেন্ডসেটিং ব্র্যান্ড রিয়েলমিও ৫জি সেবার পাশাপাশি উন্নত মানের এআইওটি পণ্যসামগ্রী নিয়ে আসছে।  

৫জি-র প্রধান সুবিধাগুলো হলো তথ্যের দ্রুত ট্রান্সমিশন এবং খুব অল্প লেটেন্সি। ৪জি এর তুলনায় ৫জি এর ল্যাটেন্সি আনুমানিক দশ গুণ কম হবে। এর ফলে দ্রুততার সাথে দূরবর্তী যেকোন কাজ সম্পাদন করা যাবে এবং অনেক ডিভাইস একই সাথে সংযুক্ত হবার সুবিধাও থাকবে। ৫জি-তে প্রতি সেকেন্ডে ১৫-২০ গিগাবাইট গতিতে নানান তথ্য, ফাইল পাঠানোর পাশাপাশি ক্লাউড কম্পিউটিং, রিমোট অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রাম, এবং দূরবর্তী সকল প্রযুক্তিগত ডিভাইস যেমন- স্মার্টফোন, কম্পিউটারে দৃশ্যত কোন লেটেন্সি বা বিলম্ব ছাড়াই কাজ করা যাবে। এর ফলে শিল্প ও লজিস্টিক্স খাত আরো সহজে এবং দ্রুততর সময়ে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এমনকি পৃথিবীর অন্য প্রান্তে অবস্থান করেও একজন ডাক্তার সূক্ষ্মভাবে যেকোন রোগীর অস্ত্রোপচার করতে পারবেন।

এআইওটি হলো ইন্টারনেট অফ থিংস (আইওটি) পরিকাঠামোর সাথে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) পণ্যের মেলবন্ধন। এআইওটি পণ্যের জন্যে আশির্বাদ হবে ৫জি সুবিধা। কেননা, এতে করে বাসা কিংবা অফিসে আরো বেশি সংখ্যক ডিভাইস একই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হতে পারবে। ফলে, মুহূর্তের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান সম্ভব হবে। পাশাপাশি অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ডেটা ব্যবস্থাপনা এবং বিশ্লেষণের মাধ্যমে মানুষের সাথে প্রযুক্তির এক অনন্যসাধারণ সম্পর্ক তৈরি হবে।

প্রযুক্তিপ্রেমী তরুণ সমাজের স্মার্ট ও ট্রেন্ডসেটিং জীবনযাত্রাকে আরো সহজতর করতে স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি তাদের চমৎকার সব স্মার্টফোনের পাশাপাশি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স অফ থিংস বা এআইওটি পণ্যসামগ্রী নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছে। সবার কাছে সেরা প্রযুক্তির সর্বাধুনিক ৫জি সেবা পৌঁছে দেয়াই এই ট্রেন্ডসেটার কোম্পানিটির লক্ষ্য।

রিয়েলমি তাদের চমৎকার সব স্মার্টফোন ও  এআইওটি পণ্যের সমন্বয়ে উন্নত প্রযুক্তির ৫জি ইকোসিস্টেম নিয়ে আসার কর্মসূচী নিয়েছে। ২০১৮ সালের মাঝামাঝি স্মার্টফোন মার্কেটে প্রবেশের পর থেকে রিয়েলমি এই উদীয়মান বাজারে তাদের নানান কৌশলে সফলতার প্রমাণসরূপ ২০১৯ এর শেষদিকে বিশ্বের দ্রুততম বর্ধনশীল স্মার্টফোনের ব্র্যান্ড হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

অতিসম্প্রতি রিয়েলমি সেরা সব স্পেসিফিকেশন নিয়ে বাজারে আনে তাদের প্রথম ৫জি স্মার্টফোন - রিয়েলমি এক্স৫০ ৫জি। এ বছর ২০টিরও বেশি এআইওটি পণ্য বাজারে আনার পরিকল্পনা করেছে কোম্পানিটি, যার মধ্যে পরিধানযোগ্য স্মার্টওয়াচ, স্মার্টব্যান্ড ও হেডফোনের পাশাপাশি থাকছে স্মার্ট টিভি, স্মার্ট স্পিকার এবং সাউন্ডবারের মতো বিভিন্ন হোম ডিভাইস।

নিজেদের কৌশলগত উৎকর্ষতায় রিয়েলমি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারকারীদের উৎসাহ অর্জন করেছে। একইভাবে কোম্পানিটি স্বল্প খরচের মধ্যে মানসম্পন্ন এআইওটি পণ্যসামগ্রী নিয়ে আসতে পারে, তবে তাদের ৫জি ইকোসিস্টেমও বিশ্বব্যাপী গ্রাহকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হবে।