ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

১৯ ঘন্টার বেশি রোজা রাখেন ডেনমার্কে


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৮:৫৭ এএম, ১৫ মে ২০১৯, বুধবার
১৯ ঘন্টার বেশি রোজা রাখেন ডেনমার্কে

 

এশিয়া অঞ্চলের তুলনায় মধ্য প্রাচ্যসহ স্ক্যান্ডিনেভিয়ান অঞ্চলের ডেনমার্ক, নরওয়ে ও আইসল্যান্ডের মত দেশগুলোতে রোজা রাখতে হচ্ছে প্রায় ১৯ ঘন্টারও বেশি।

পানাহার বর্জনের এই পরীক্ষায় সবার কষ্ট এক রকম হয় না। কোনো কোনো দেশের মানুষ ১০ ঘণ্টারও কম রোজা রাখেন, আবার কোনো কোনো দেশের রোজাদারেরা রোজা রাখেন দীর্ঘ ২৩ ঘণ্টা।

বিশ্বে এবার সবচেয়ে বেশি সময় ধরে রোজা রাখছে মুরমান্সক নামে রাশিয়ার প্রদেশের মুসলিমে এলাকার লোকজনদের। ৮০০০ হাজার মানুষের এ প্রদেশটির লোকজন ২০ ঘন্টা রোজা রাখছে। এরপরে রয়েছে ইউরোপের আরেকটি দেশ আইসল্যান্ড। সেখানকার মুসলিমরা সাড়ে ১৯ ঘন্টা রোজা রাখছেন।

আর যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, বেলারুশ, জার্মানি, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, কাজাকিস্তান, বেলজিয়াম, চেক রিপাবলিক, অস্ট্রিয়া ও হাঙ্গেরিতে রোজা রাখার সময় প্রায় ১৭ ঘন্টা।

আবার মাত্র ৯ ঘণ্টা ৩০ মিনিট রোজা রাখছেন আর্জেন্টিনার মুসলিম বাসিন্দারা। এছাড়াও ১০ ঘণ্টা রোজা রাখছেন অস্ট্রেলিয়ার মুসলিমরা। অন্যদিকে ১১ ঘণ্টা রোজা রাখছেন আর্জেন্টিনার পার্শ্ববর্তী দেশ ব্রাজিল।

পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ৯-২১ ঘণ্টার মাঝামাঝিতেও পানাহার বর্জনের পরীক্ষা দেন অনেকেই। সে দেশগুলো হলো- মধ্যপ্রাচ্যের মিশরে প্রায় ১৬ ঘণ্টা, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ফিলিস্তিন ও ইয়েমেনে ১৫ ঘণ্টা, কাতার ১৪ ঘণ্টা ৪০ মিনিট এবং কুয়েত, ইরাক, জর্দান, আলজেরিয়া, মরক্কো, লিবিয়া ও সুদানে ১৪ ঘণ্টা। পাশাপাশি এশিয়ার পাকিস্তানে প্রায় ১৫ ঘণ্টা ও ভারতীয় মুসলমানরা ১৪ ঘণ্টা ১৬ মিনিট রোজা রেখে উপবাস থাকেন।

এর মধ্যে বেশ দীর্ঘ সময় রোজা রাখছেন পৃথিবীর উত্তরাঞ্চলের মুসলমানরা। বিশেষত স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলোর অধিবাসীরা। তাদের রোজার দৈর্ঘ্য প্রায় ১৯ ঘণ্টা। আবার আইসল্যান্ড ও গ্রীনল্যান্ডে বসবাসরত মুসলমানদের রোজার সময়ের দৈর্ঘ্য গড়ে ২১ ঘণ্টা।

অমৃতবাজার/এএস