ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮ | ৫ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সেহরি খাওয়ার সঠিক সময় কতক্ষণ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:৩৯ পিএম, ২০ মে ২০১৮, রোববার
সেহরি খাওয়ার সঠিক সময় কতক্ষণ

কিয়ামুর রমজান বা তারাবিহ নামাজ আদায় করতে অনেক রাত হয়ে যায়। ফলে তারাবিহ পড়ে ঘুমানোর আগে অনেকেই খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। ফজরের আগে ওঠে আর সেহরি গ্রহণ করেন না। প্রিয়নবির ঘোষণা হলো নূন্যতম খেজুর বা পানি দ্বারা হলেও সাহরি গ্রহণ করা উচিত। তাহলে সাহরি গ্রহণের সময় মূলত কোন সময়?

ইসলামে বলে সেহরি খাওয়ার সময় শুরু হয় মধ্যরাত থেকে। আর শেষ হয় ফজরের আগে। তবে ফজরের আগে তথা শেষ রাতে সেহরি গ্রহণ করাই হলো মোস্তাহাব। যদি কেউ মধ্যরাতের আগে খাওয়া-দাওয়া করে ঘুমিয়ে পড়ে, তবে তাকে সাহরি গ্রহণের জন্য শেষ রাতে ওঠতে হবে। আর মধ্যরাতের পরে খেয়ে ঘুমিয়ে পড়লে সাহরি খাওয়ার বরকত ও হুকুম আদায় হয়ে যাবে।

হজরত আনাস (রা.) বর্ণনা করেন, যায়েদ বিন সাবেত তাকে জানিয়েছেন যে, তারা রাসুলুল্লাহ (স.) সঙ্গে সাহরি খেয়ে (ফজরের) নামাজ পড়তে ওঠে গেছেন।

হজরত আনাস (রা.) জিজ্ঞাসা করলেন, ‘সাহরি খাওয়া ও ফজরের আজান হওয়ার মধ্যে সময়ের ব্যবধান কতটুকু? উত্তরে যায়েদ বিন সাবেত (রা.) বলেন, ’৫০ অথবা ৬০ আয়াত পড়তে যতক্ষণ সময় লাগে।’ (বুখারি, মুসলিম, তিরমিজি)

৫০/৬০ আয়াত বলতে মধ্যম ধরনের আয়াত। যা তেলাওয়াতে ১৫/২০ মিনিট সময় লাগবে। সে আলোকে ফজরের আজানের ১৫ থেকে ২০ মিনিট আগে সাহরি খাওয়া। অতএব সাহরি খাওয়ার সুন্নাত সময় হলো ফজরের ১৫/২০ মিনিট আগে সাহরি খাওয়া।

উল্লেখ্য, সাহাবায়ে কেরাম ইফতারের সময় হওয়ার সঙ্গে ইফতার করতেন আর সাহরি শেষ সময়ে সেহরি গ্রহণ করতেন।

অমৃতবাজার/সবুজ