ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিঙ্গাপুরে শিশু ধর্ষণের মামলায় বাংলাদেশির ২২ বছরের জেল


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৩:১০ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার
সিঙ্গাপুরে শিশু ধর্ষণের মামলায় বাংলাদেশির ২২ বছরের জেল

১২ বছরের একটি মেয়ে ধর্ষণের ঘটনায় সিঙ্গাপুরের হাইকোর্ট দেশটিতে বাংলাদেশি একজন নির্মাণ শ্রমিককে কারাদণ্ড দিয়েছেন। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) আদালতের ওই রায়ে রতন চন্দ্র দাসকে (৪১) ২২ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। একইসঙ্গে তাকে ১৮টি বেত্রাঘাত করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

অপ্রাপ্তবয়স্ক ওই মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনায় রতনের বিরুদ্ধে ২৫টি অভিযোগ গঠন করা হয়। এর মধ্যে তিনটি অভিযোগ তিনি স্বীকার করে নেয়ার পর আদালত তাকে এই সাজা দেন। অন্য ২২টি অভিযোগের মধ্যে রয়েছে ১০টি অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন এবং আটটি আপত্তিকর ছবি ছড়ানো। 

আদালতের নথি থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল মাসের মধ্যে রতন ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে। তবে একজন ব্যক্তির সঙ্গে সন্দেহজনক ভিডিও কল এবং তার মোবাইলের ক্ষুদে বার্তা দেখার পর ওই মেয়ের মায়ের সন্দেহ হয়। 

সিঙ্গাপুরের হাইকোর্টের শুনানিতে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ওই কিশোরী তার আত্মীয়দের সঙ্গে ট্রেনে ভ্রমণ করছিল। ওই একই ট্রেনে ছিল রতন। এসময় ওই শিশুর দিকে চোখ পড়ে রতনের। 

তাদেরকে অনুসরণ করতে থাকে সে। এক পর্যায়ে রতন ওই কিশোরীকে তার দুটি ফোন নম্বর দিয়ে ফোন করতে বলে। একই দিনে কিশোরী তাকে ফোন করে। রতন তখন তাকে জানায় তার বয়স ২৫ বছর। ওই শিশু জানায় তার বয়স ১২ বছর। এরপর তাদের যোগাযোগ অব্যাহত থাকে। রতন যৌন অসংলগ্ন কথাবার্তা পোস্ট করতে থাকে তাকে। চ্যাটিংয়ে উঠে আসে তা। এভাবে দুজনের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়।

অমৃতবাজার/পিকে