ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ | ১৪ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু জন্মবার্ষিকীতে এথেন্সস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে বৃক্ষরোপণ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৮:১০ পিএম, ১৭ মার্চ ২০১৮, শনিবার | আপডেট: ০৮:১১ পিএম, ১৭ মার্চ ২০১৮, শনিবার
বঙ্গবন্ধু জন্মবার্ষিকীতে এথেন্সস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে বৃক্ষরোপণ

বঙ্গবন্ধু জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে এথেন্সস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে বৃক্ষরোপণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে গ্রিসের এথেন্সস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস শিশু-কিশোরদের নিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আয়োজন করে।
 
১৫ মার্চ এথেন্সের এলসস পার্কে দূতাবাস এবং এথেন্সের নিউ ফিলাডেলফিয়া সিটি কর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি। কর্মসূচির উদ্বোধন করেন গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন এবং নিউ ফিলাডেলফিয়া সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মি. আরিস ভাসিলোপুলোস। এই সময় ভাইস মেয়র মিজ্ ইতোচিয়া পাপালোকা, মি. ইয়রগস আনিমোগিয়ানিস, রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিনী মিসেস শায়লা পারভিন, দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রম) ড. সৈয়দা ফারহানা নূর চৌধুরী এবং প্রথম সচিব সুজন দেবনাথ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে নিউ ফিলাডেলফিয়া সিটি কর্পোরেশনে অবস্থিত স্কুলের দেড় শতাধিক গ্রিক ছাত্র-ছাত্রী এবং এথেন্সে বসবাসরত বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি শিশু-কিশোর অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্কুলের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবক এবং প্রবাসী বাংলাদেশি বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।
 
অনুষ্ঠানের শুরুতে গত ১২ মার্চ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের  মর্মান্তিক বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে ১ মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়। নিউ ফিলাডেলফিয়া সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এই দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের প্রতি তার সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। তিনি বাংলাদেশি ছাত্র-ছাত্রী, তাদের অভিভাবক এবং শিক্ষকদের এই যৌথ আয়োজনে অংশগ্রহণের জন্য শুভেচ্ছা জানান। তিনি বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে এই আয়োজনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠান উদ্বোধন করে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার দৃপ্ত পদক্ষেপে তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ও গ্রিস দুই দেশই সমৃদ্ধ সংস্কৃতির অধিকারী। বন্ধুত্বপূর্ণ এই দুটি দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক যোগাযোগ আরো দৃঢ় হচ্ছে। যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মসূচি বাংলাদেশ ও গ্রিসের সুদৃঢ় সাংস্কৃতিক বন্ধনের পরিচয় প্রকাশ করে।

রাষ্ট্রদূত কর্মসূচিতে উপস্থিত বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, শিশু-কিশোররা দুই দেশের সংস্কৃতি বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার কর্তৃক শিশুদের উন্নয়নে গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচির কথাও রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। তিনি এই আয়োজনের জন্য নিউ ফিলাডেলফিয়ার মেয়রকে বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

দুই দেশের ছাত্র-ছাত্রীরা বাংলাদেশ ও গ্রিসের জাতীয় পতাকা নিয়ে বিশেষ সম্প্রীতি র‌্যালি করে। এরপর রাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন এবং মেয়র মি. আরিস ভাসিলোপুলোস একটি জলপাই গাছ রোপণের মাধ্যমে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির সূচনা করেন। আমন্ত্রিত অতিথিসহ দুই দেশের শিশু-কিশোররা মনোরম এলসস পার্কের লেকের সামনে অনেকগুলো বৃক্ষ এবং ফুলের চারা রোপণ করেন। দুই দেশের শিশু-কিশোররা ছোট ছোট দলে অত্যন্ত আনন্দঘন পরিবেশে বৃক্ষরোপণ করে।
 
এর মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের ধারণা গ্রিসের শিশু-কিশোরদের মধ্যে ব্যাপ্তি লাভ করছে। গ্রিসের শিশু-কিশোররা একদিকে যেমন জাতির পিতার মহতি জীবন সম্পর্কে জানতে পারছে তেমনি তার কর্মময় জীবনের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে সমাজ ও মানুষের কল্যাণে  কাজ করার শিক্ষা গ্রহণ করছে।   

জাতির পিতার জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে উপস্থিত অভিভাবক এবং শিক্ষকরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, এর মাধ্যমে বাংলাদেশ ও গ্রিসের বিপুল সংখ্যক শিশু-কিশোর দুই দেশ সম্পর্কে জানতে পারলো। তারা বাংলাদেশ দূতাবাসের এই ধরণের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে আশা ব্যক্ত করেন।

অমৃতবাজার/ইকরামুল