ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

`সরকার ভয় পায় বলেই বিএসএফ গুলি চালায়`


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৯:১৬ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার
`সরকার ভয় পায় বলেই বিএসএফ গুলি চালায়` নজরুল ইসলাম খান। ছবি- সংগৃহীত।

সরকার প্রতিবাদ করতে ভয় পায় বলেই সীমান্তে বিএসএফ-এর হত্যাকাণ্ড বন্ধ হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর গুলশানে ২০ দলীয় জোটের বৈঠক শেষে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, `সরকার ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে ভয় পায়। তাই সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষীদের (বিএসএফ) হত্যাকান্ড বন্ধ হচ্ছে না।`

এদিকে নওগাঁ দুয়ারপাল সীমান্তে তিন বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে বিএসএফের বিরুদ্ধে। স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) ভোরে সীমান্তের ২৩১/১০ এস মেইন পিলার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। তবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) একজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

নিহতরা হলেন- দিঘীপাড়া গ্রামের খোদাবক্সের ছেলে মফিজুল ইসলাম (৩৫), কাঁটাপুকুরের মৃত জিল্লুর রহমানের ছেলে কামাল হোসেন (৩২) এবং পোরশা উপজেলার বিষ্ণপুর বিজলীপাড়ার শুকরার ছেলে রনজিত কুমার (২৫)।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে বেশ কয়েকজন ভারতের অভ্যন্তরে অবৈধভাবে গরু আনতে যান। তারা গরু নিয়ে বাংলাদেশে ফেরার পথে বৃহস্পতিবার ভোররাতে দুয়ারপাল সীমান্ত এলাকার ২৩১/১০ এস মেইন পিলারের নীলমারী বিল এলাকায় ভারতের ক্যাদারীপাড়া ক্যাম্পের বিএসএফ জোয়ানরা গরু ব্যবসায়ীদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় অন্যরা পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও তিন বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হন। গরু ব্যবসায়ী মফিজুল ইসলামের গুলিবিদ্ধ মরদেহ বাংলাদেশের ২০০ গজ অভ্যন্তরে পড়ে ছিল। আর রনজিত কুমার ও কামাল হোসেনের মরদেহ ভারতের ৮০০ গজ অভ্যন্তরে পড়ে ছিল।

১৬ বিজিবির হাঁপানিয়া ক্যাম্প কমান্ডার নায়েব সুবেদার মোখলেছুর রহমান জানান, তিনজন গুলিবিদ্ধের বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তবে গুলিবিদ্ধদের মধ্যে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে একজন মারা গেছে। অপর দুইজন ভারতের অভ্যন্তরে মারা গেছে কি না খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। তিনি পতাকা বৈঠকের জন্য বিএসএফকে চিঠি দেওয়া হবে।

অমৃতবাজার/এসএইচএম