ঢাকা, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জামায়াতকে তালাক দিন বিএনপিকে জাফরুল্লাহ


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৯:২৪ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার
জামায়াতকে তালাক দিন বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

 

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলকে (বিএনপি) উদ্দেশ্য করে বলেছেন, ‘জামায়াতকে একটু ‘তালাক’ দিয়ে আপনারা রাস্তায় নামেন। দেখবেন বাংলাদেশ আপনাদের সাথে আছে। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি আসছে, বেগম খালেদা জিয়ারও মুক্তি হবে।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ আয়োজিত এক মানববন্ধনে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে উদ্দেশ করে এই আহ্বান জানান তিনি।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকারীদের ফাঁসি দাবি’ নিয়ে এ মানববন্ধন হয়। আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার ফজলে সাইফুদ্দিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

বিএনপি নেতা আমীর খসরুর উদ্দেশে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের নামে ভোট ডাকাতি হয়েছে। আজকে জনগণের প্রশ্ন সামনে ভোট দিতে পারবো কিনা? ভোট দেয়ার সংগ্রামটাই জনগণের কাছে আসল। এজন্য আন্দোলন করতে হবে। জামায়াত জোটে থাকলে আন্দোলন হবে না। এই যে আমীর খসরু। এটা আপনাদেরই দায়িত্ব। সব বিভেদ একটু ভুলে গিয়ে জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামুন। বাংলাদেশ আপনাদের সঙ্গে আছে। বাংলাদেশে গণতন্ত্রের মুক্তি আসবে এবং খালেদা জিয়া মুক্ত হবেন।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপি নেতা-কর্মীদের প্রতিদিন রাস্তায় কর্মসূচি করার পরামর্শ দেন বিএনপি সমর্থক পেশাজীবী নেতা জাফরুল্লাহ।

তিনি বলেন, ‘আজকে আবরারের হত্যাকাণ্ডের যে কাহিনী শুনছি, তারা (সরকার) ৩০২ ধারায় মামলাকে ৩০৪ ধারায় পরিণত করার চেষ্টা করছে। এই সরকারের জন্য এটা নতুন কোনো ঘটনা নয়।’

মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আইনি লড়াইয়ে খালেদা জিয়া মুক্ত হবেন না। তাই সবাইকে আগামী দিনে রাস্তায় নেমে আন্দোলন করতে হবে।’

বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে আয়োজিত এই মানববন্ধনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কাদের গনি চৌধুরী, রফিক শিকদার, ফরিদ উদ্দিন, কাজী মনিরুজ্জামান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অমৃতবাজার/এএস