ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এরিককে নিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ, সমালোচনায় জাপা নেতা


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:০২ পিএম, ২৮ আগস্ট ২০১৯, বুধবার
এরিককে নিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ, সমালোচনায় জাপা নেতা

 

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহকে কেন্দ্র করে নতুন বিতর্কে জাড়িয়েছে দলটি।

নুতন বিতর্ক শুরু হয় এরশাদের ছেলে এরিককে নিয়ে। গতকাল মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) জাপার বনানী কার্যালয় থেকে এরিককে দিয়ে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন রংপুর মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন অপ্রাপ্তবয়স্ক এই শিশুকে সঙ্গে নিয়ে মনোনয়ন সংগ্রহ করায় তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছেন ইয়াসির।

দলটির অনেক নেতারাই বলছেন, দলীয় মনোনয়ন পেতে বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ ও বিশেষ সুবিধা নিতে এরিক এরশাদকে মনোনয়ন ফরম তোলার কাজে ব্যবহার করা হয়েছে।

এতে বেজায় চটেছেন এরিকের মা বিদিশা। তিনি বলেন, ‘এটা অমানবিক কাজ হয়েছে। যে বাচ্চা নিজের ভালো-মন্দ কিছু বোঝে না, তাকে রাজনীতির একটা ঘুঁটি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। সে নমিনেশনের কী বোঝে? তারা তাকে ব্যবহার করে যথেষ্ট খারাপ কাজ করেছে। দেশে তো একটা আইন-আদালত আছে নাকি? তারা যা ইচ্ছে, তা করবে এটা তো হতে পারে না। এরিকের বাবা এরশাদ বেঁচে থাকলে এ ধরনের নোংরা কাজ তারা করতে পারত না।’

বিদিশা আরও বলেন, ‘আমি আশা করিনি জাতীয় পার্টির লোকেরা এরিককে দিয়ে এসব নোংরা কাজ করবে। আমাকে এখনও ছেলের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। তার সঙ্গে কথাও বলতে দিচ্ছে না।’

তবে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নন বলে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের।

তিনি বলেন, ‘এরিককে দিয়ে কারা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছে তা আমি জানি না। শুধু জানি রংপুর-৩ আসনে জাতীয় পার্টি থেকে একজন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছে। তবে কোন উদ্দেশ্য নিয়ে এরিককে দিয়ে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছে এটা আমি মনে করি না।’

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার ইসি সচিব মো. আলমগীর জানিয়েছেন, এই আসনের উপনির্বাচনের তফসিল আগামী ১ সেপ্টেম্বর ঘোষণা করা হবে।

তিনি জানান, এ নির্বাচনের বিষয়ে ইসি দুটো সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেগুলো হলো- আগামী ১ সেপ্টেম্বর তফসিল ঘোষণা করা হবে এবং ভোট হবে ইভিএমে। আগামী বৃহস্পতিবার আরেকটি বৈঠকে তফসিল চূড়ান্ত করা হবে।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর গত ১৬ জুলাই আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করা হয়।

ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, আসন্ন শূন্য হওয়ার দিন থেকেই নব্বই দিন গণনা করা হয়। এক্ষেত্রে আগামী ১১ অক্টোবরের মধ্যে ওই আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ জুলাই ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার মৃত্যুতে রংপুর-৩ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

অমৃতবাজার/এএস