ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এরশাদের জন্য দোয়া চাইলেন স্ত্রী রওশন


অমৃতবাজার রিপোর্ট 

প্রকাশিত: ০১:১৫ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯, রোববার | আপডেট: ০১:২২ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯, রোববার
এরশাদের জন্য দোয়া চাইলেন স্ত্রী রওশন

 

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আত্মার মাগফেরাতের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন এরশাদ পত্নী জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ।

রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়ার আহ্বান জানান।

রওশন এরশাদ বলেন, এরশাদের প্রথম জানাজা ঢাকা সেনানিবাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে তার জন্মস্থান রংপুরে নেওয়া হবে। সেখানে জানাজা শেষে পুনরায় ঢাকায় এনে সামরিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

এর আগে আজ রোববার (১৪ জুলাই) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তিনি রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সাবেক এ রাষ্ট্রপতি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

রক্তে হিমোগ্লোবিন না থাকা, ফুসফুস সংক্রমণ  ও কিডনি জটিলতায় গত ২৬ জুন সিএমএইচ-এ ভর্তি হন এরশাদ। সেখানে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল।

উল্লেখ্য, ১৯৩০ সালের ১ ফেব্রুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের কুচবিহার জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। কুচবিহার ও নিজ শহর রংপুরে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষা গ্রহণের পর তিনি ১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন।

১৯৮২ সালে ২৪ মার্চ রাষ্ট্রপতি আব্দুস সাত্তারের নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতায় আসেন এরশাদ। ১৯৮৩ সালের ১১ ডিসেম্বর নাগাদ তিনি প্রধান আইন প্রশাসক হিসেবে দেশ শাসন শুরু করেন।

১৯৮৬ সালে তিনি জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠা করেন এবং দলের মনোনয়ন নিয়ে ১৯৮৬ সালে পাঁচ বছরের জন্য দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন।

গণআন্দোলনের মুখে ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন এ সামরিক শাসক। এরপর তাকে বেশ কয়েকবছর কারাবরণ করতে হয়।

তার প্রতিষ্ঠিত জাতীয় পার্টি ২০০০ সালে তিনভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে, যার মধ্যে মূল ধারার তিনি চেয়ারম্যান।

২০০১ সালের অক্টোবরে অনুষ্ঠিত অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এরশাদের জাতীয় পার্টি ১৪টি আসনে জয়ী হয়। এরপর তিনি ২০০৬ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪-দলীয় জোটের সঙ্গে মহাজোট গঠন করেন।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার দল ২৭টি আসনে বিজয়ী হয়। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার দল  প্রধান বিরোধী দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এবং তার স্ত্রী রওশন এরশাদ প্রধান বিরোধী দলীয় নেতা হন।

এরপর ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২২টি আসন পেয়ে আবারও তার দল প্রধান বিরোধী দল হিসেবে সংসদে অবস্থান করছে।

অমৃতবাজার/এএস