ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘কোন শক্তিই ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করতে পারবেনা’


মাদারীপুর সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৫:১৫ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
‘কোন শক্তিই ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করতে পারবেনা’

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত এখন ড. কামাল হোসেনের উপর ভর করে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। এ ষড়যন্ত্রে কোন লাভ হবে না। কোন শক্তিই ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করতে পারবে না। দেশের জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আছেন এবং আগামী নির্বাচনে জনগণ নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে আবারও ক্ষমতায় নিয়ে আসবে। আবার ক্ষমতায় এসে মাদারীপুর তথা সারাদেশে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করা হবে।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের নয়াচরে শিপ পার্সোনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধন ও ড্রেজার বেইজ নির্মানের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান এমপি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি এখন কুঁজো দলে পরিনত হয়েছে। তারা এখন আর কোমড় সোঁজা করে দাড়াতে পারছে না। শুধু মুখে বলে ঈদের পরে কঠোর আন্দোলন হবে। কই ঈদ তো অনেক আগেই চলে গেছে, তাদের তো কোন আন্দোলন আমরা দেখলাম না। বিএনপি কিভাবে আন্দোলন করবে, কারণ তাদের সাথে তো জনগণ নেই। এদেশের মানুষ তাদের চরমভাবে ঘৃণা করে। তারা ২০১৪/১৫ সালে দেশের সাধারণ মানুষকে যে ভাবে জ্যান্ত পুড়িয়ে, বোমা মেরে হত্যা করেছে তা বাংলার মানুষ ভোলেনি। এজন্য বিএনপি একটি হত্যাকারী দলে পরিণত হয়েছে। বিএনপি’র কোমড় ভেঙে গেছে দেখেই তারা পরগাছার মতো অন্যের উপর ভর দিয়ে রাজনীতি করছে। ড. কামাল হোসেন, কাদের সিদ্দিকী, আ.স.ম রব, মান্নাসহ কয়েকজন দল ছুটে লোকের সাথে মিলে রাজনীতি করছে।

শাজাহান খান আরো বলেন, শেখ হাসিনার শাসনামল স্বর্ণযুগে পরিণত হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যাচ্ছে। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আছে বলেই সারাদেশের সাথে সাথে মাদারীপুরে আজ স্বপ্নের মতো উন্নয়ন হয়েছে। এ জেলাতে ফোরলেন সড়ক হয়েছে, দশতলা বিশিষ্ট একটি বৃহৎ ভবনে সকল সরকারি অফিসের দপ্তর হচ্ছে। এ দপ্তর ভবনটি শুধু মাদারীপুরে প্রথম হয়েছে। যার পরিকল্পনাকারী আমি নিজেই। এ ভবনটি মাদারীপুরের দেখা দেখি এখন অন্যান্য জেলাতে হবে। এছাড়াও শিপ পার্সোনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, ইকোপার্ক, আড়িয়াল খাঁ নদীর পাড়ে ওয়াকওয়ে, পুলিশ সুপারে নতুন কার্যালয়, আড়াইশ শয্যার সদর হাসপাতাল, নতুন জেলা কারাগার, আসমত আলী খান ৭ম চীন মৈত্রী সেতু, কারিগরি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, আকর্ষণীয় শকুনী লেকের সৌন্দর্য বর্ধন, বহু সেতু, ব্রিজ, কালভার্ট, রাস্তাসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর এম মোজাম্মেল হক এর সভাপতিত্বে আয়োজিত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার, জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিয়াজউদ্দিন খান, বিআইডব্লিউটিএ’র সচিব কাজী ওয়াকিল, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ভোলানাথ দে, অতিরিক্ত সচিব শহিদুল ইসলাম, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আব্দুস সামাদ।

অমৃতবাজার/শফিক/শাওন