ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘের আমন্ত্রণে নিউইয়র্ক গেলেন মির্জা ফখরুল


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার
জাতিসংঘের আমন্ত্রণে নিউইয়র্ক গেলেন মির্জা ফখরুল

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের আমন্ত্রণে নিউইয়র্ক গেলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তিনি ঢাকা ত্যাগ করেন। মির্জা ফখরুলের সঙ্গে গেছেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল। আজও বিএনপির এক জ্যেষ্ঠ নেতা তাদের সঙ্গে যোগ দিতে ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

জাতিসংঘের সদর দফতরে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠেয় এক বৈঠকে বাংলাদেশের সার্বিক পরিস্থিতি, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মির্জা ফখরুল দলের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরবেন বলে জানা গেছে। এদিন স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় সংস্থাটির রাজনীতি বিষয়ক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মিরোস্লাভ জেনকার সঙ্গে তাদের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

সূত্রমতে, এ সফরে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিএনপির প্রতিনিধি দলের বৈঠক হতে পারে।

বিএনপির একাধিক নেতা জানিয়েছেন, আলোচনার বিষয়বস্তু আগামী জাতীয় নির্বাচন হলেও দেশের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরবে প্রতিনিধি দল। এ জন্য একটি লিখিত বক্তব্য তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন পত্রিকার খবর ও ছবিও উপস্থাপন করা হবে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, তার মুক্তি প্রক্রিয়া বিলম্বিত হওয়া এবং হত্যা, গুম, নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানির বিষয়টিও জাতিসংঘকে অবহিত করা হবে।

এদিকে গত কয়েক মাসে বিদেশি রাষ্ট্র ও সংস্থাগুলোর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করে বিএনপি। এরই মধ্যে গত রমজান মাসে স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ভারতে বিভিন্ন পর্যায়ের থিংক ট্যাংকসহ ক্ষমতাসীন ও বিরোধীদলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

গত মার্চে জাতিসংঘকে একটি চিঠিও দেয় বিএনপি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক করতে সংস্থাটিকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানানো হয়। কমনওয়েলথ সম্মেলনের প্রাক্কালেও সদস্য দেশগুলোকে দেশের চলমান বিচার ব্যবস্থা, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কারচুপি, খালেদা জিয়ার মামলা, জামিন হওয়া-না হওয়ার বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে চিঠি দেয়া হয়।

অমৃতবাজার/সুজন