ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৮ | ৬ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

‘যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করা হবে’


যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:৪১ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭, বুধবার | আপডেট: ০৬:১৯ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭, বুধবার
‘যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করা হবে’

৩১ ডিসেম্বর যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে জনসভাকে জনসমুদ্রে রূপন্তরিত করে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সভায় পরিণত করা হবে। আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা সফল করার লক্ষ্যে বুধবার দুপুরে সিসিটিএস মিলনায়তনে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিনিধি সভায় এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নেতৃবৃন্দ।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলির সদস্য পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য। প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগেরে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগেরে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর। বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার, সাবেক ছাত্র নেতা মশিউর রহমান হুসাইন।

প্রধানমন্ত্রীর এ সভা সফল করার লক্ষ্যে প্রস্তুতি বিষয়ক মতামত ব্যক্ত করেন যশোর-৪ আসনের এমপি রণজিৎ কুমার রায়, যশোর-৩ আসনের এমপি কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-২ আসনের এমপি মনিরুল ইসলাম, যশোর-৫ আসনের এমপি স্বপন ভট্টাচার্য্য, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও যশোর পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম চালদার রেন্টু। সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন।

সভায় বক্তারা বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকলে দেশ ভাল থাকবে, আমরা ভাল থাকবো। তাই এ সভার মাধ্যমে আবারও প্রমাণ করতে হবে যশোরের মাটি নৌকার ঘাঁটি। এক্ষেত্রে ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকার গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে চাই। ২০ দলীয় জোটকে বোঝাতে চাই যশোরে আওয়ামী লীগ এক ও ঐক্যবদ্ধ।

বক্তারা আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় দেশ আজ উন্নয়নের শিখরে। যে কোন মানদণ্ডে আমরা এখন ভাল আছি। কিন্তু উন্নয়ন করে ভোটে জয়ী হওয়া যায় না। উন্নয়ন শুধু ভোট চাওয়ার পথ করে দেয়। তাই সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভোটারের দুয়ারে দুয়ারে যেতে হবে। বক্তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের আদর্শ, তাঁর কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের নেতা, আমাদের প্রতিক নৌকা। এর কোন বিকল্প নেই। আর এ আদর্শকে বুকে ধারণ করে আমারা যশোরের এ জনসভাকে যশোরে ৩১ ডিসেম্বর শুধু থাকবে বঙ্গবন্ধুর স্লোগান, থাকবে শেখ হাসিনার স্লোগান, থাকবে জয়ের নামে স্লোগান, সর্বোপরি থাকবে নৌকার স্লোগান। এ স্লোগান শহর- গ্রামের প্রতিটা অঞ্চলে ধ্বণিত হবে। যে ধ্বণি যশোর ছাড়িয়ে বাংলাদেশের প্রতিটা জেলায় ছড়িয়ে পড়বে। এ লক্ষ্যে যশোরের এ জনসভা নির্বাচনী বৈতরণী পার হবার জনসভা। তাই সকলকে সকল বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ জনসভাকে সফল করতে হবে।

প্রতিনিধি সভায় জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা আওয়ামী লীগ, পৌর আওয়ামী লীগ, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বিজয়ের মাস ডিসেম্বরের শেষ দিন যশোরে আসছেন জাতির জনক কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিন তিনি যশোর স্টেডিয়ামে জনসমাবেশে বক্তব্য রাখবেন। ১৯৭৩ সালে এই স্টেডিয়ামে যশোরবাসীর সামনে বক্তব্য রেখেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। পিতার স্মৃতিধন্য সেই স্টেডিয়ামে এবার জনসভা করবেন কন্যা শেখ হাসিনা।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোর আসছেন এমন খবরে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসব মনোভাব সৃষ্টি হয়েছে। দলীয় সভানেত্রীকে স্বাগত জানাতে তারা প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে মোড়ে মোড়ে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে ব্যানার লাগানো শুরু হয়েছে। বুধবারের প্রতিনিধি সভা থেকে ব্যাপক লোকসমাগম ঘটনানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অমৃতবাজার/প্রণব/মিঠু

Loading...