ঢাকা, রোববার, ২৮ মে ২০১৭ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

‘আপনারা রেইনট্রি ঘটনা থেকে বাইরে চলে যাচ্ছেন’


কাজী আনিস

প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ১৬ মে ২০১৭, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৬:৪৫ পিএম, ১৬ মে ২০১৭, মঙ্গলবার
‘আপনারা রেইনট্রি ঘটনা থেকে বাইরে চলে যাচ্ছেন’

সাফাতের বাবা সাফাতকে দৈনিক খরচ কত দিত-তা জানতে আমি আপনার পত্রিকা বা নিউজ পোর্টাল খুলিনি। পিয়াসার সঙ্গে সাফাতের বিয়ের কত টাকা কাবিন ছিল সেটা জানার জন্য আপনার চ্যানেল টিভি পর্দায় আনিনি। সাফাতের বাবার কোন নেশা আছে-তা জানার ইচ্ছা আমার নেই। সাফাত কোন কোন নায়িকা বা মডেলের সঙ্গে কী করেছে-তাও জানা আমার উদ্দেশ্য নয়।

অভিযোগকারী একজন ছাত্রীর সাক্ষাৎকার ইউটিউবে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। জানতে চাই, কারা করলো, কেন করলো। জানতে চাই, ওই দিন যে ভিডিও হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে তা উদ্ধার করতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পেরেছে কি না। পত্রিকার রিপোর্ট অনুযায়ী, সাফাতের বাবা মেয়েগুলোর কী ছবি জানি প্রকাশের হুমকি দিয়েছে। এ হুমকিও অপরাধ। এ নিয়ে কিছু করা হবে কি না জানতে চাই।



আমরা ধর্ষণের অভিযোগ নিয়েই নিউজ দেখতে চাই। রেইনট্রিতে মদ পাওয়া গেল না ছাগল পাওয়া গেল, তার চেয়ে মুখ্য রেইনট্রি`র যাদের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ আসছে, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কি না, কখন হবে- এসব জানতে চাই। আরেক অভিযোগ ওঠা নাইম কোথায়, কেন তাঁকে এখনও ধরা হচ্ছে না-তা জানতে চাই। জানতে চাই, ঘটনা আর ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব কিছু। যা সংশ্লিষ্ট নয়, তা লিখে আপনারা মূল ঘটনা থেকে বাইরে চলে যাচ্ছেন।

মূল বিষয় ছেড়ে ঘটনার সঙ্গে সম্পর্ক নেই এমন নায়িকা বা মডেলদের নিয়ে লিখছেন, গণমাধ্যমকে রসালো করার চেষ্টা করে পাঠক-দর্শক খুঁজে বেড়াচ্ছেন। টাকা দিয়ে সাফাত কোন নায়িকার সঙ্গে কী করতো লিখছেন। সাফাতদের বিরুদ্ধে নারী ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে, আপনাদের বিরুদ্ধে অন্য নারীদের নিয়ে এমন হয়রানিরও তো অভিযোগ করা যায়।

অপরাধের বিরুদ্ধে লিখবেন, লিখতে লিখতে যেন আপনিও অপরাধ না করে ফেলেন। লিখতে লিখতে যেন মূল অপরাধকে ছেড়ে অন্য কোথাও ঢুঁ না মারেন।

মূল বিষয় থেকে নজর এড়ানোর চেষ্টা হবে। সেই চেষ্টাটা যেন আপনার সাংবাদিকতার মাধ্যমে শক্তি না পায়।

বি স্পেসিফিক...

লেখক: শিক্ষক, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

অমৃতবাজার/রেজওয়ান

Loading...