ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নারী সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা


পাবনা সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ০৭:৫৭ এএম, ২৯ আগস্ট ২০১৮, বুধবার
নারী সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা ফাইল ছবি

পাবনা পৌর সদরের রাধানগর এলাকায়  নিজ ভাড়া বাসার সামনে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘আনন্দ টিভি’ ও দৈনিক জাগ্রত বাংলার সম্পাদক ও প্রকাশক সুবর্ণা নদীকে (৩০ কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাবনা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইবনে মিজান।

মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত নারী সাংবাদিকের নাম সুবর্না নদী (৩২)। তিনি পাবনার প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতেন।

তিনি বলেন, পাবনা পৌর সদরের রাধানগর মহল্লায় আলীয়া মাদ্রাসার পশ্চিম পাশের একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন তিনি। বাসার কলিংবেল টিপে কয়েকজন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি তাকে ডেকে বের করে। সুবর্না নদী গেট খোলার সঙ্গে সঙ্গে তাকে অতর্কিতভাবে এলোপাথারী ভাবে কুপিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

তিনি আরো বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তবে আমাদের পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট কাজ করছেন প্রকৃত ঘটনা উদ্ধারের জন্য।`

এ বিষয়ে পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী বাবলা বলেন, প্রত্যক্ষদর্শীরা আমাদের জানিয়েছেন, ১০/১২ জন সন্ত্রাসী কয়েকটি মোটরসাইকেল যোগে এসে তাকে কুপিয়ে তারা দ্রুত বেগে চলে যায়। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

সুবর্ণা নদী একদন্ত ইউনিয়নের বাড়ইপাড়া গ্রামের মৃত আয়েব আলীর মেয়ে। তার পাঁচ থেকে ছয় বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি স্বামীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। এ নিয়ে আদালতে একটি মামলাও চলছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে সুবর্ণার দুইটি আইডিতে যেসব তথ্য পাওয়া গেছে তাতে দেখা যাচ্ছে, ফেসবুক নিয়ে সমস্যায় ছিলেন তিনি। তবে কী ধরণের সমস্যায় তিনি ছিলেন তার কিছু তিনি প্রকাশ করেননি।

সুবর্ণা হত্যার ঘটনায় পাবনায় কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এই খবরে উদ্বিগ্ন পাবনাসহ সারাদেশের সাংবাদিক সমাজ।

জুলাই মাসের ১৫ তারিখে একটি সংবাদের লিংক শেয়ার করেন সুবর্ণা; যে পোস্টটি তার শেয়ার করা সর্বশেষ ক্রাইম রিপোর্ট।

অমৃতবাজার/জয়