ঢাকা, রোববার, ১৯ নভেম্বর ২০১৭ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

‘বিপজ্জনক বাড়িতে’ বসবাস: ছাদ ভেঙে আহত ৩


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৬:৩৭ পিএম, ১৯ মে ২০১৭, শুক্রবার | আপডেট: ০৭:১৮ পিএম, ১৯ মে ২০১৭, শুক্রবার
‘বিপজ্জনক বাড়িতে’ বসবাস: ছাদ ভেঙে আহত ৩

বাড়ির বাইরে ঝুলছে ‘বিপজ্জনক বাড়ি’র নোটিশ। কিন্তু সেই বিপজ্জনক বাড়ির ভিতরেই বাস করছিলেন লোকজন। মাস কয়েক আগে একাংশ ভেঙেও ফেলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ২৫, রিপন লেনের ওই বাড়ির একাংশ ভেঙে পড়ে। আহত হন ৩ জন বাসিন্দা। তাদের উদ্ধার করে ন্যাশনাল মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। নাজমা খাতুন নামে এক বৃদ্ধা হাসপাতালে ভর্তি। তার ছেলে আরশাদ আলি ও পুত্রবধূ শবনম বিবিকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আরশাদ জানান, রাতে ঘুমাতে যাওয়ার সময়েই ছাদের একাংশ ভেঙে পড়ে। তিনি আরো জানান, সম্প্রতি অন্য একটি অংশ ভেঙে পড়েছিল। তাকে প্রশ্ন করা হলো, বিপজ্জনক জেনেও বসবাস করছিলেন কেন? উত্তরে আরশাদ বলেন, তারা বহু দিন ধরে বাস করছেন। বাড়িওয়ালাকে মেরামত করতে বললেও তিনি করেননি।

ঘটনার পরে কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় জানান, ওই বাড়িটিকে বিপজ্জনক ঘোষণা করে বাসিন্দাদের একাধিক বার সরে যেতে বলা হয়েছিল। নোটিশও পাঠানো হয়েছিল।

পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, এই সব বাড়িতে বহু দিন ধরে বাসিন্দারা থাকছেন। জোর করে সরাতে গেলে সমস্যা হতে পারে। তাই বিপজ্জনক বাড়ি নিয়ে নতুন আইন হয়েছে। কিন্তু তাতে পুনর্বাসনের প্রকল্প এখনও স্থির করা হয়নি। সে সব হওয়ার পরে তা পরিষদে পাশ করাতে হবে। ফলে আইন তৈরি হলেও তা প্রয়োগের জায়গা এখনও তৈরি হয়নি।

এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন উঠেছে অনেক। ভারী বৃষ্টি হলেই এই বাড়িগুলি ভেঙে পড়ার আশঙ্কা বাড়ে। আইন হওয়ার পরেও তা প্রয়োগ করা না গেলে বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়। তা হলে কি কলকাতার বিপজ্জনক বাড়ির বাসিন্দাদের মাথায় ছাদ ভেঙে পড়বে? সঠিক উত্তর মিলছে না।

অমৃতবাজার/ইকরামুল/রেজওয়ান

এ সম্পর্কিত আরও খবর...
Loading...