ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০ | ১৮ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরের খরচ বহনেও অক্ষম পাকিস্তান


অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৬:১২ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রোববার
প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরের খরচ বহনেও অক্ষম পাকিস্তান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: সংগৃহীত

সুইজারল্যান্ডের দাভোসে আয়োজিত `ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম ২০২০` তে অংশ নিয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তবে এই সফরের ব্যয়ভার বহনের সামর্থ ছিল না পাকিস্তান সরকারের। 

এই সফরে দুই রাত্রির জন্য ইমরান খানের খরচ হয়েছিল ৪৫০,০০০ মার্কিন ডলার। 

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান নিজে জানিয়েছেন, সরকারের টাকা বাঁচাতেই তিনি নিজের দুই ব্যবসায়ী বন্ধুকে `স্পনসরশিপের` কথা বলেন। আর পাক সরকারের ওপর থেকে সরে যায় বিপুল খরচের ভার।

দুই রাতে দাভোসে ইমরানের থাকা-খাওয়ার জন্য খরচ হয়েছে ৪৫০,০০০ টাকা। অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রনেতাদের তুলনায় এই খরচ ১০ গুণ কম বলেও ইমরানকে দেশবাসীর কাছে তা জানাতে হয়েছে।

কারণ, পাকিস্তানের আর্থিক পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে দেশটির প্রশাসন বেশ কয়েকমাস আগেই জানিয়েছে যে তারা সরকারী দফতরে থাকা বিভিন্ন বিরল জিনিস যেসব ব্যবহার হয়না বা অযত্নে রয়েছে সেসব নিলামে তুলবে। প্রবল আর্থিক মন্দায় পড়ে ইসলামাবাদের সরকার কার্যত বর্তমানে দেউলিয়া। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে, পাক প্রধানমন্ত্রীর দাভোস সফরের খরচ যোগানো হচ্ছে কিভাবে।

ইমরান খান জানিয়েছেন,`যখনই বিদেশ সফরের ডাক আসে আমি আগে দেখি তার থেকে দেশের কোনও লাভ হবে কিনা, নয়তো তা বাতিল করে দিই ।`

যে দেশে খোদ প্রধানমন্ত্রীর দফতরেরই বিদ্যুৎ সংযোগ কাটা হয় প্রদেয় বিলের অনাদায়ে, সেখানে প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরের খরচ বহন করা ঘিরেও মাথার ঘাম পায়ে পড়বে স্বাভাবিক। তাই ইমরান নিজেই জানালেন তার সাম্প্রতিক বিদেশ সফরের স্পনসরশিপ দিয়েছেন দুইজন ব্যবসায়ী বন্ধু।

এদিকে, পাকিস্তানি সংবাদপত্রগুলি দাবি করেছে, পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথমবার কোনও প্রধানমন্ত্রীর `অফিসিয়াল ` বিদেশ সফর `স্পনসর` করতে হল কোনও বেসরকারী মাধ্যমকে। যা নিঃসন্দেহে উদ্বেগজনক।

অমৃতবাজার/এসএইচএম