ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

করোনা ভাইরাস: গৃহবন্দী দুই কোটি মানুষ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:৪২ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার
করোনা ভাইরাস: গৃহবন্দী দুই কোটি মানুষ

 

চীনের করোনা ভাইরাস ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এই রোগে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ছাড়িয়েছে। তবে অন্যান্য সূত্র বলছে, দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজারের বেশি।

করোনা ভাইরাসের কারণে চরম আতঙ্কে দিনাতিপাত কাটছে দেশটির নাগরিকরা। শুধু চীনেই নয় এই ভাইরাসের আতঙ্ক বিরাজ করছে বিশ্বজুড়ে।

ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে এই ভাইরাস। বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই সরকারীভাবে চীনের উহানসহ মোট তিনটি শহরের প্রায় দু’কোটি মানুষকে শহর থেকে বেরোতে নিষেধ করা হয়েছে। এছাড়া উহান শহরে গণপরিবহণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

হুবেই স্বাস্থ্য কমিশন বলেছেন, ভাইরাসে নতুন করে মারা যাওয়ার সবাই উহান অঞ্চলের বাসিন্দা। এই অঞ্চলেই প্রথম এই ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে।

এদিকে এই ভাইরাস ইতিমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানসহ প্রায় ৭টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ইতোমধ্যে। যা বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ ও শঙ্কার তৈরি করেছে।

গত ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

এদিকে, সপ্তাহান্তে চীনের নববর্ষকে ঘিরে বিদেশে থাকা অনেক চীনা নাগরিক দেশে ফিরছেন। তাঁরা যখন আবার ফিরে যাবেন তখন তাঁদের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এছাড়া চীনের ভেতরেও এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় মানুষের যাতায়াত বাড়ছে। তাই বিমানবন্দরসহ রেল ও বাস স্টেশনে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

২০০২ -২০০৩ সালে চীনে সার্স (সিভিয়ার একিউট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল। সেই সময় প্রায় ৮০০ জন মারা গিয়েছিলেন। করনো ভাইরাস নিয়েও সেরকম আশঙ্কা করা হচ্ছে।

অমৃতবাজার/এএস