ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০ | ২৪ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রথমবারের মতো সৌদি সামরিক বাহিনীতে নারী!


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৬:৫২ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
প্রথমবারের মতো সৌদি সামরিক বাহিনীতে নারী!

 

সৌদি আরবের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো সামরিক বাহিনীতে যোগ দিলেন নারীরা। এখন থেকে দেশটির সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন শাখায় সিপাহি থেকে শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করবেন নারীরা। দায়িত্ব পালনের সুবিধার্থে নারীদের জন্য আলাদা সামরিক শাখাও চালু হয়েছে দেশটিতে।

গত রোববার (১৯ জানুয়ারি) সৌদি সামরিক বাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ ফায়াদ আল-রুয়ালি সামরিক বাহিনীতে নারীদের জন্য আলাদা শাখা চালুর ঘোষণা দেন।

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান সৌদি ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে নারীর ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি করা হচ্ছে। গত বছর সৌদি সরকার দেশটির নারীদেরকে নিরাপত্তা বাহিনীর মাদক-বিরোধী দপ্তর, অপরাধ তদন্ত এবং কারা ব্যবস্থাপনার মতো জননিরাপত্তা শাখায় কাজের সুযোগ দিয়েছে।

এছাড়া এক বছর আগে যেখানে সৌদি আরবে পুরুষ সঙ্গী ছাড়া নারীদের ভ্রমণ নিষিদ্ধ ছিল এমনকি গাড়ি চালানোর অনুমতি ছিল না সেই দেশে নারীরা এখন গাড়ি চালানোর অধিকার পেয়েছে। আর এবার নারীদেরকে সামরিক শাখায় কাজের সুযোগ করে দেওয়া হলো।

সৌদি সরকারের নিয়োগ ও তালিকাভুক্তি বিভাগের পরিচালক মেজর জেনারেল ইমাদ আল-আইদান নতুন নিয়োগ পাওয়া নারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘নারীরা যেসব জায়গায় দায়িত্ব পালন করবে তার একটি তালিকা আমরা ইতোমধ্যেই করেছি। তালিকা অনুযায়ী দায়িত্ব ভাগ করে দেওয়া হবে।’

গত বছরের অক্টোবরে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সামরিক বাহিনীতে নারীদের নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিল। তারই ধারাবাহিকতায় চলতি বছর সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর বিভিন্ন পদে কাজের সুযোগ পেলেন সৌদি নারীরা।

সৌদি আরবের উপদেষ্টা পরিষদ শুরা কাউন্সিলের সাবেক সদস্য হায়া আল-মুনি বলেন, ‘এই দেশের নতুন বিধিবিধান পুরোপুরি নারীবন্ধব। নারীদের অধিকার নিয়ে রাষ্ট্র এখন সজাগ। তাই নানা ধরনের কর্মক্ষেত্রে ঢোকার সুযোগ পাচ্ছেন নারীরা। রাষ্ট্র যদি নারী-পুরুষকে সমান দৃষ্টিতে না দেখত তাহলে এমন চিত্র দেখা যেত না।’

অমৃতবাজার/এএস