ঢাকা, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০ | ১২ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

১২ লাখ টাকায় জঙ্গিদের কাছে বিক্রি হয়েছেন ভারতীয় ডিএসপি


অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৭:১৪ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
১২ লাখ টাকায় জঙ্গিদের কাছে বিক্রি হয়েছেন ভারতীয় ডিএসপি ছবি: সংগৃহীত

অবশেষে `হিজবুল মুজাহিদিন` এর কাছ থেকে ১২ লাখ টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন জঙ্গিদের সঙ্গে গ্রেফতার হওয়া জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিএসপি দেবেন্দ্র সিং। সোমবার এ কথা জানিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজি) বিজয় কুমার।

তদন্তকারী কর্মকর্তাদের একটি সূত্র জানিয়েছে, গাড়িতে জম্মু রওনা হওয়ার আগে জঙ্গিরা যে দেবেন্দ্রর বাড়িতেই ছিলেন, সে কথাও দেবেন্দ্র স্বীকার করে নিয়েছেন।

জঙ্গিদের সঙ্গে হাত মেলানোর অভিযোগে সোমবারই তাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এবার তার রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে পাওয়া পুলিশ পদকের পাশাপাশি সমস্ত পদক কেড়ে নেওয়া হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন আইজি বিজয় কুমার। পুরো বিষয়টির তদন্তভার এনআইএ-র হাতে ন্যাস্ত করা হতে পারে বলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে।

হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার নাভিদ মুস্তাক ওরফে নাভিদ বাবু ও ওই জঙ্গি সংগঠনের সদস্য রফি রাঠৌরকে নিয়ে শ্রীনগর থেকে একই গাড়িতে জম্মু যাচ্ছিলেন ডিএসপি দেবেন্দ্র সিং। গাড়ি চালাচ্ছিলেন কাশ্মীরের বাসিন্দা আইনজীবী তথা হিজবুলের প্রকাশ্য সদস্য ইরফান শফি মির। তারপর থেকেই ডিএসপি-র জঙ্গিদের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ, কেন্দ্রীয় ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো (আইবি), কেন্দ্রীয় গুপ্তচর সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস উইং ‘র’, সেনা গোয়েন্দা-সহ একাধিক তদন্তকারী ও গোয়েন্দা সংস্থার পদস্থ কর্মকর্তা।

গোয়েন্দাসূত্র জানিয়েছে, দেবেন্দ্র সিং ও তার জঙ্গি সাথীদের কাশ্মীর থেকে জম্মু, তারপর চণ্ডিগড় হয়ে দিল্লি যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল। প্রজাতন্ত্র দিবসে জঙ্গি হামলার ছক কষেছিলেন তারা।

তবে, ঠিক কী ধরনের হামলার ছক কষেছিল জঙ্গিরা, অথবা দেবেন্দ্র সেই পরিকল্পনার কথা জানতেন কি না, তা এখনও স্পষ্ট হয়নি গোয়েন্দাদের কাছে। সেই বিষয়গুলি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পেতে জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে যাচ্ছেন একাধিক গোয়েন্দা ও তদন্তকারী সংস্থার কর্মকর্তারা।

১২ লাখ টাকা নিয়েছিলেন জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিএসপি দেবেন্দ্র সিং। কিন্তু শুধুই কি টাকার বিনিময়ে জঙ্গিদের সাহায্য করাই তার উদ্দেশ্য ছিল, না কি তিনি জঙ্গিদের বাকি পরিকল্পনার কথাও জানতেন, সে বিষয়ে জানতে জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে যাচ্ছেন গোয়েন্দারা।

অমৃতবাজার/এসএইচএম