ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিজেপিতে উচ্ছ্বাস, শপথের প্রস্তুতি মোদির


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৩:৫৪ পিএম, ২২ মে ২০১৯, বুধবার
বিজেপিতে উচ্ছ্বাস, শপথের প্রস্তুতি মোদির

বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রীক দেশ ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ভোট শুরু হওয়ার পর থেকেই নির্বাচনের মাঠে সবচেয়ে আলোচিত বিষয়গুলোর অন্যতম ছিল নরেন্দ্র মোদি।  আবারো নাকি দিল্লির মসনদে আসছে মোদি?

ভোটের রাজনীতিতে আর্ন্তজাতিক বিশ্বে আলোচনার বিষয় ছিল ৯০ কোটি ভোটার আসলে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য কাকে বেছে নেবেন। সাত দফার ভোট শেষে সেই উত্তরের কিছুটা আভাস মিলেছে। দেশের ভার আরো একবার মোদির হাতেই থাকছে এবং আগের চেয়ে তা বেশি আসন নিয়ে।

ইতিমধ্যেই বুথ ফেরত জরিপে বিজেপির জয়ের আভাসের পর দ্বিতীয়বারের মতো সরকার গঠনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এন.ডি.এ জোট। শপথের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

দেশটির গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, অধিকাংশ বুথ ফেরত জরিপে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার ক্ষমতায় আসার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। আর এই পূর্বাভাসকেই সঠিক মনে করছে দলটি।

এদিকে, আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার দুই দিন আগেই মঙ্গলবার রাতে নয়াদিল্লির একটি হোটেলে নতুন সরকার গঠনে করণীয় ঠিক করতে জোটের শরিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠকে বসে বিজেপি। বৈঠক শেষে দ্বিতীয়বারের মতো এনডিএ জোট সরকার গঠনের বিষয়ে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি স্বাক্ষরিত একটি প্রস্তাব পাস করা হয়। জোটের ৩৬টি শরিক দল এতে উপস্থিত থাকলেও তিনটি দল অংশ নেয়নি।

ওই তিনটি দল লিখিতভাবে সমর্থনের কথা জানিয়েছে বলে জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং। বিগত ৫ বছরের ধারাবাহিকতায় আগামী পাঁচ বছরের জন্য নতুন সরকার গঠনের বিষয়ে সফল আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী, এনডিএ ৩০০, কংগ্রেস ও বিরোধী জোট পাবে ১২৭ আসন। এরমধ্যে, উত্তর প্রদেশের ৮০ আসনের মধ্যে বিজেপি জোট ৪৪ আসন পাবে। ২০১৪ সালে মাত্র ২টি আসন পেলেও এবারে মায়াবতী-অখিলেশ মেলবন্ধনে কংগ্রেস পাচ্ছে ৩৪টি আসন।

গত ডিসেম্বরের নির্বাচনে ভালো করলেও এবারের লোকসভা নির্বাচনে ভারতের তিন প্রাণকেন্দ্র মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্তিশগড়ে জেতা হচ্ছে না কংগ্রেসের।

৯০ কোটি ভোটারের দেশ ভারতে গত ১৯ এপ্রিল থেকে ১৯ মে পর্যন্ত সাতটি পর্বে লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হবে আগামীকাল ২৩ মে।

তবে বিশ্লেষকরা সতর্ক করে বলছেন, বুথফেরত জরিপে বিজেপি এগিয়ে থাকলেও চূড়ান্ত ফলাফল পাওয়া পর্যন্তই অপেক্ষা করতে হবে মোদীর সমর্থকদের। কারণ অতীতে অনেক সময়ই ফল পাল্টে যাওয়ার রেকর্ড হয়েছে।

অমৃতবাজার/পিকে