ঢাকা, বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ইফতারে মিষ্টি রেসিপি


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৪:১৮ পিএম, ২৩ মে ২০১৮, বুধবার | আপডেট: ০৪:২২ পিএম, ২৩ মে ২০১৮, বুধবার
ইফতারে মিষ্টি রেসিপি

রমজানের রোজাই ইফতারে আমরা সাধারণত মিষ্টি দিয়ে প্রথম শুরু করি। বাহারি পদের আয়োজনের শুরুটা সবসময়ই হয় শরবত দিয়ে। আবার তেমনি শেষ পাতে মিষ্টি স্বাদের খাবার না হলে যেন আসে না তৃপ্তি। কেমন হতে পারে শরবত আর মিষ্টির আয়োজন। জানাচ্ছেন রন্ধনশিল্পী শাহনাজ ইসলাম।

মিষ্টি বুন্দিয়া

উপকরণ: বেসন ২ কাপ, পানি ১.৫ কাপ, রেড ফুড কালার ১ চিমটি

সিরা তৈরিতে যা লাগবে: চিনি ১ কাপ, পানি ২ কাপ, এলাচ একটি, লেবুর রস তিন থেকে চার ফোঁটা

প্রস্তুত প্রণালি: একটি বাটিতে বেসন ও পানি দিয়ে গোলা তৈরি করে নিন। এবার অন্য একটি বাটিতে অল্প করে বেসনের গোলা নিয়ে তাতে রেড ফুড কালার মিশিয়ে নিন। এখন চুলায় একটি পাত্র বসিয়ে পানি, চিনি ও এলাচ দিয়ে জ্বাল করতে থাকুন। পানি ফুটতে শুরু করলে লেবুর রস দিয়ে দিন। এতে চিনির সিরা জমাট বাঁধবে না। চিনির সিরা তৈরি হলে নামিয়ে নিন। সিরা খুব বেশি ঘন করা যাবে না।

এবার চুলায় একটি কড়াই বসিয়ে তেল গরম করে নিন। এখন গোল ছিদ্রযুক্ত একটি ছাকনি তেলের প্যানের কিছুটা ওপরে ধরে ছাকনিতে বেসনের গোলা দিয়ে বা আলতো হাতে নাড়ুন। এতে দেখবেন গোল গোল হয়ে বুন্দিয়া তেলের মধ্যে পড়ছে। এভাবে সব বুন্দিয়া ভাজার পর চিনির সিরায় ভিজিয়ে রাখুন। বুন্দিয়া যখন ভিজে রসে টইটুম্বুর হবে তখন পরিবেশন করুন।

শাহি মুতাঞ্জান জর্দা পোলাও 

উপকরণ: বাসমতি চাউল ২ কাপ, দুধ ১ কাপ, ঘি ১ কাপ, মাওয়া ১ কাপ, দারুচিনি, তেজপাতা, লবঙ্গ ১টি, এলাচ ৩টি, চিনি ১ কাপ, কাজু ও পেস্তাবাদাম ১ টেবিল চামচ (ঘিয়ে ভাজা), ছোট রসগোল্লা, ছোট কালোজাম মিষ্টি ১ কাপ, মোরব্বা, কিশমিশ, খেজুর আদা কাপ, কমলার রস ৩ টেবিল চামচ, জর্দা রঙ পরিমাণ মত।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে চাউল পানিতে ভিজিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। কড়াইতে পরিমাণ মতো পানি ফুটিয়ে এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, তেজপাতা দিন। তারপর ভিজিয়ে রাখা চাল দিয়ে আধাসিদ্ধ করুন। নামানোর আগে জর্দা রঙ মিশিয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার অন্য একটি প্যানে দুধ, ঘি, চিনি দিয়ে জ্বাল দিন। ফুটে উঠলে সিদ্ধ চাল দিয়ে নাড়তে থাকুন। ঝরঝরে হয়ে এলে কমলা রস দিয়ে নামিয়ে নিন পরিবেশন পাত্রে অর্ধেক জর্দা পোলাও ঢেলে এর ওপর মাওয়া, কিশমিশ, খেজুর, মোরব্বা, বাদাম অর্ধেকটা ছড়িয়ে ওপরে বাকি জর্দা ঢেলে দিয়ে বাকি মাওয়া, কিশমিশ, খেজুর, মোরব্বা, বাদাম, মিষ্টি, ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

আমের লাচ্ছি

উপকরণ: আমের রস এক কাপ, দারুচিনি গুঁড়ো আধা চা চামচ, চিনি দুই টেবিল চামচ, দই আধা কাপ, ঠাণ্ডা পানি বা আইস কিউবস আধা কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি: আইস কিউবস বাদে সব একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। স্মুথ হবে। আইস কিউবস মিশিয়ে ১০ সেকেন্ড ব্লেন্ড করলেই হয়ে যাবে। সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।

দুধ দুলারি

উপকরণ: সিদ্ধ রঙিন সেমাই আধা কাপ, ঘন তরল দুধ ১ লিটার, কনডেন্সড মিল্ক্ক ১ কাপ, ফ্রেশ ক্রিম আধা কাপ, মাওয়া আধা কাপ, চিনি ১ টেবিল চামচ, স্ট্রবেরি জেলোটিন ১ প্যাকেট, আপেল, আম, আঙ্গুর, চেরি কুচি ১ কাপ, ছোট রসগোল্লা, ছোট কালোজাম ১ কাপ, কাজুবাদাম, কাঠবাদাম কুচি ১ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি: স্ট্রবেরি জেলোটিন গরম পানিতে জ্বাল দিয়ে ফ্রিজে জমিয়ে ডিজাইন করে কেটে নিন। দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন হলে চিনি, পানিতে গুলানো কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে অনবরত নাড়তে থাকুন। ভালো মতো নেড়ে ঘন হলে নেড়ে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। এবার দুধের মিশ্রণে কনডেন্সড মিল্ক্ক, ফেটানো ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এতে পর্যায়ক্রমে সিদ্ধ সেমাই, ফলকুচি, ছোট রসগোল্লা, ছোট কালোজাম, জেলোটিন, বাদামকুচি, মাওয়া মিশিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। এবার ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন দুধ দুলারি।

বাদাম আমের শরবত

উপকরণ: কাঠ বাদাম ২ টেবিল চমচ, কাজু বাদাম ২ টেবিল চামচ, পেস্তা বাদাম কুচি ১ টেবিল চামচ, আমের রস ৪ গ্লাস, লবণ এক চিমটি, চিনি প্রয়োজন হলে।

প্রস্তুত প্রণালি: আমের রসের মধ্যে সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে খুব ভালোভাবে ব্লেন্ড করতে হবে যেন দানা দানা না থাকে। হালকা একটু চিনি দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার বাদাম আমের শরবত।

অমৃতবাজার/সবুজ