ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শেষ জামানার কিছু আলামত


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৬ পিএম, ১৬ মে ২০১৮, বুধবার
শেষ জামানার কিছু আলামত

প্রাচীন সভ্যতার শিলালিপি এবং বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থেও শেষ জামানার নানা আলামতের কথা বলা হয়েছে। একটি পক্ষ বর্তমানে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন নজির সামনে এনে দাবি করছেন, এটাই হচ্ছে শেষ জামানা। যদিও অপর পক্ষ তা আমলে নিতেই নারাজ।

সম্প্রতি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম, এক্সপ্রেস ইউকে শেষ জামানার ইঙ্গিত বহন করে এমন কিছু ছবি সম্প্রতি প্রকাশ করেছে।

১. শুকর ছানার মানুষের মুখ! সম্প্রতি আর্জেন্টিনায় এটি জন্ম নেয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।


২. গত বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে দক্ষিণ মেরুর শুভ্র বরফে হঠাৎ দেখা যায় রক্তের লাল স্রোত। চমকে যান বিজ্ঞানীরাসহ নানা মহল। বিজ্ঞানীদের মনে উদ্বেগের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। পরে অবশ্য আলাস্কা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী জানান, বরফের ভেতর আয়রন অক্সাইড থাকার ফলে সাদা বরফ লাল বর্ণ ধারণ করেছে।

৩. বৈশ্বিক জলবায়ুর ক্ষতির জন্য যে দেশগুলোর দায় সবচেয়ে বেশি, যুক্তরাষ্ট্র তার শীর্ষে। প্রকৃতিও এই দেশটির উপরেই গত ক’বছর ধরে নানা দুর্যোগ দিয়ে আসছে। চলতি বছর ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে দাবানল দেখা দিলে ক্রমেই তা ভয়াবহ আকার ধারণ করে।



৪. শেষ জামানার লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে, শক্তিমান দেশগুলোর একগুঁয়ে শাসকেরা মরণ বিধ্বংসী অস্ত্রের পরীক্ষা বৃদ্ধি করবে। যেমনটা এখন দেখা যাচ্ছে, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচীকে ঘিরে।



৫. শেষ জামানায় সাগর ও মাটির নীচ থেকে বিকট আকারের অদ্ভুত সব দানব উঠে আসবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ফিলিপাইন, জর্জিয়া, ইন্দোনেশিয়া, স্পেন, রাশিয়াসহ বিভিন্ন স্থানে অদ্ভুত সব মৃত দানব দেখা যাচ্ছে। যা শেষ জামানার ইঙ্গিত বহন করছে বলেই বিশ্বাসীরা মনে করেন।

৬. অদ্ভুত এই দানবের দেখা মেলে টেক্সাস উপকূলে।

৭. নাম না জানা ভয়ঙ্কর এই প্রাণীকে পাওয়া যায় যুক্তরাজ্যের ইয়র্কশায়ারে।

৮. ছবির এই ভয়ঙ্কর প্রাণীটিকে দেখে অনেকে এলিয়েন বলে মতামত দিয়েছেন। তবে এটি কি ধরনের প্রাণী সে সম্পর্কে বিজ্ঞানীদের কাছ থেকে কোনো উত্তর মেলেনি।

৯. মেঘের ভেতর এমন নিখুঁত চোখ দেখে অনেকেই একে ঈশ্বরের বলে দাবি করেছেন। পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমেও দাবি করা হয়, পৃথিবীর শেষ সময়ে আকাশে, জলে ও স্থলে এমন সব দৃশ্য দেখা যাবে বলে বাইবেলে উল্লেখ রয়েছে।

১০. এক হারিকেনেই যুক্তরাষ্ট্রের এই শহরটি মাটিতে মিশে গেছে। যদি সভ্যতার শেষ সময় চলে আসে তবে গোটা পৃথিবীই ধ্বংসস্তূপে পরিণত হবে বিশ্বাসীরা দাবি করে থাকেন।

অমৃতবাজার/জয়