ঢাকা, শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮ | ৩ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

পুতুলের জন্য হাসপাতাল!


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৫:০৬ পিএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, মঙ্গলবার
পুতুলের জন্য হাসপাতাল!

প্রায় ২০০ বছর আগে ১৮৩০ সালে পর্তুগালের লিসবন শহরে যাত্রা শুরু করে ‘হসপিটাল দে বোনেকাস’ নামের একটি হাসপাতাল। ওই হাসপাতালে রোগীদের হাত-পা, এমনকি মাথাও জোড়া লাগিয়ে দেন ‘বিশেষজ্ঞ ডাক্তার’ দল! ভাবছেন, মাথা আবার জোড়া লাগানো যায় না-কি! কিন্তু এটাও সম্ভব। কারণ পুতুলের মাথা হলে তা জোড়া লাগানো সম্ভবই। এটা হচ্ছে পুতুলের হাসপাতাল। মানুষের হাসপাতালের মতোই আলাদা আলাদা ওয়ার্ডে বিশেষায়িত চিকিৎসা দেওয়া হয় রোগী পুতুলের।

লিসবনের এ হাসপাতালটির বর্তমান কর্ণধার সাবেক স্কুল শিক্ষিকা ম্যানুয়েলা কুটেইলার। চারজন সার্জন চিকিৎসা সেবা দেন সেখানে। সঙ্গে কাজ করছেন আরো বেশ কয়েকজন কর্মী, যারা প্রতিদিন পর্তুগালের বিভিন্ন জায়গা থেকে নিয়ে আসা পুতুলের হাত, পা, চোখ, মাথা ইত্যাদি অংশ জোড়া লাগান।

হাসপাতালটিতে বিভিন্ন ধরনের পুতুল, খেলনা পশুপাখি ইত্যাদির সংরক্ষণ ও চিকিৎসা করা হয়ে থাকে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের মালিক। তবে চিকিৎসার সময় রোগীর আর্থিক অবস্থাকে প্রাধান্য দেন না তারা।

সেবা নিতে আসা ক্রেতাদের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে কুটেইলার বলেন, এখানে আমরা এমন ক্রেতাও পেয়েছি, যিনি তার প্রিয় পুতুলটিকে একেবারে নতুনের মতো পেয়ে আনন্দে কেঁদে ফেলেছেন। এখন বয়স্করাই হাসপাতালের প্রধান সেবাগ্রহীতা। সেখানে প্রায় ৮০ শতাংশ গ্রাহকই বয়স্ক বলে জানান ওই পরিচালক।

অমৃতবাজার/সুজন