ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮ | ৫ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সত্যিকারের লিলিপুটের গ্রাম


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:২৫ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮, বৃহস্পতিবার
সত্যিকারের লিলিপুটের গ্রাম ছবি অনলাইন

ইরানের পূর্বাঞ্চলে আজও রয়ে গেছে ক্ষুদে মানুষদের গ্রাম। গ্রামটি যেন বিশ্বখ্যাত লেখক জোনাথন সুইফটের ‘গালিভারস ট্রাভেলস’ বইটির কথাই মনে করে দেয়। গ্রামটির নাম মাখুনিক। ১৯৪৬ সালে গ্রামটির অস্তিত্ব আবিস্কার করা হয়। সে সময় একটি রাস্তাও তৈরি করা হয়।

পাহাড়ের আড়ালে অবস্থিত গ্রামটি ১৫শ বছরের পুরনো বলে জানা যায়। এখন থেকে ১০০ বছর আগেও মাখুনিক নামের এ গ্রামের অধিবাসীরা উচ্চতায় মাত্র প্রায় ৩ ফুটের মতো ছিল। ইরানিদের গড় উচ্চতার চেয়ে এরা প্রায় ৫০ সেন্টিমিটার খাটো।

গ্রামের ছোট ছোট কিছু বাড়িঘর এখনও সেখানে রয়ে গেছে। পর্যটকরা প্রতি বছর সে বাড়িগুলো দেখতে ভিড় করছেন। এছাড়া গ্রামবাসীও বিপুল বিস্ময়ে দেখেন যে, তাদের পূর্বপুরুষ আগে কতটা খাটো ছিল। তবে এটি শুধু একটি গ্রামই নয়, এখানে প্রায় ১৩টি গ্রাম ছিল বলে মনে করছেন গবেষকরা। এ সব গ্রামের অধিবাসীরাই ছিল স্বাভাবিক উচ্চতার চেয়ে অনেক খাটো।

২০০৫ সালে সে অঞ্চলে একটি মমি হয়ে যাওয়া মৃতদেহ পান গবেষকরা। তারা অনুসন্ধান করে দেখেন, সেই দেহটি বেশ খাটো ছিল।

এরপর ক্রমে গ্রামের অবস্থা পাল্টে যায়। বাইরে থেকে বহু মানুষ যেমন গ্রামটিতে আসে তেমন গ্রামবাসীরাও বাইরে চলে যায়। এছাড়া বাইরের মানুষের সংস্পর্শ, পরিবার গঠন ও উন্নত খাবারের প্রভাবে গ্রামের মানুষের উচ্চতাও বাড়তে থাকে।

অমৃতবাজার/জয়