ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সালমান-শাবনূরের অজানা সত্য ফাঁস করলেন সামিরা


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১২ এএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার
সালমান-শাবনূরের অজানা সত্য ফাঁস করলেন সামিরা

ঢাকাই সিনেমার বাঁক বদল করে দেওয়া নায়ক ছিলেন সালমান শাহ। তার স্ত্রী ছিলেন সামিরা। সালমান শাহ মাত্র ২১ বছর বয়সে, ১৯৯২ সালে তার মা নীলা চৌধুরীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়ে সামিরাকে বিয়ে করেন। সেই সময় আলোচিত দম্পতি ছিলেন সালমান-সামিরা।

কিন্তু ক্ষণজন্মা এই নায়কের আত্মহত্যার ঘটনায় গত ২৪ বছরে বারবার অপরাধীর কাঠগড়ায় উঠতে হয়েছে তাকে। ছিলেন হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি। নানা রকম বিরূপ সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়েছে সামিরাকে। তবুও আত্মবিশ্বাসের সাথে প্রতিবার নিজেকে নির্দোষ দাবী করে গেছেন তিনি।

অবশেষে এলো স্থায়ী সমাধান, পিবিআইয়ের চূড়ান্ত তদন্তে এসেছে জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহ আত্মহত্যাই করেছেন, খুন হননি। আর আত্মহত্যার অন্যতম কারণ চিত্রনায়িকা শাবনূরের সঙ্গে সালমানের ‘অতি-অন্তরঙ্গতা’।

এ বিষয়ে শীর্ষ দৈনিকের সঙ্গে কথা বলেছেন সালমান শাহর সাবেক স্ত্রী সামিরা হক। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর এই তদন্ত ফলাফলের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘তদন্তের শুরু থেকে আমি একই কথা বলে আসছি। জানি আমি নির্দোষ। পিবিআই বলার পর হয়তো আরও অনেকে বিশ্বাস করলো।

এদিকে সেই সাক্ষাতকারে সামিরা হক বললেন, ‘শাবনূরকে তার কৃতকর্মের জন্য সরি বলতে হবে। সেটা এখন হোক কিংবা পরে, এই জীবনে কিংবা শেষ বিচারের দিনে।’

তিনি জানান, সালমান শাহ ও শাবনূর যে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন, সে কথা সালমান নিজেই তার কাছে স্বীকার করেছিলেন।

সামিরা বলেন, ’৯৬ সালে বাদল খন্দকারের একটি সিনেমার শুটিংয়ে সালমান ও শাবনূর কক্সবাজারে যান। সেখানেই সম্পর্কে জড়ান তারা। ওই বছরের আগস্টে শাবনূরকে নিয়ে সিঙ্গাপুরে যান সালমান।

এরপর সেখান থেকে ফিরে সালমান নিজেই সামিরাকে বলেন, তিনি একটা অন্যায় করে ফেলেছেন। শাবনূরের সঙ্গে এমন কিছু পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে যে তাকে ব্ল্যাকমেল করা হতে পারে।

একপর্যায়ে সামিরা রাগ করে চট্টগ্রামে চলে যান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৩ সেপ্টেম্বর সালমানের কাছে ফিরে আসেন। পরদিন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানেও দুজনে একসঙ্গে যান। ওই বছর সালমান সেরা চিত্রনায়ক ও শাবনূর সেরা নায়িকার পুরস্কার পেয়েছিলেন। তবে শাবনূর ওই অনুষ্ঠানে আসেননি। এর দুদিন পর আত্মহত্যা করেন সালমান।

সামিরা জানান, শাবনূর তার সঙ্গে যা করেছেন, সেটা তিনি ভুলতে পারেন না। একটা সময় তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা ছিল। তিনি সাজগোজ করতে শিখিয়েছিলেন শাবনূরকে। সেই মেয়েটি কী করে সালমানের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ালেন, এ নিয়ে দুঃখ হয় সামিরার।

সামিরা হক এখন তিন সন্তানের মা। ’৯৯ সালে দুই পরিবারের সম্মতিতে সামিরা বিয়ে করেন সালমান শাহর বন্ধু মোস্তাক ওয়ায়েজকে।