ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ | ১১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মিলাকে গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন



প্রকাশিত: ০৩:১৬ পিএম, ১২ জুন ২০১৯, বুধবার | আপডেট: ০৩:৩০ পিএম, ১২ জুন ২০১৯, বুধবার
মিলাকে গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

সংগীতশিল্পী মিলা ও তার সহকারী পিটার কিমের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে তার সাবেক স্বামী বৈমানিক পারভেজ সানজারির ভাই ও এইড ফর মেন নামের একটি সংগঠন। বুধবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সানজারির ভাই আলামিন খান বলেন, মিলার নির্দেশে আমার ভাইয়ের ওপর অ্যাসিড ছুঁড়েছে তার সহকারী কিম। তার হাত ও শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে গেছে। আমার ভাইকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। এখনো নিয়মিত হুমকি দিয়ে আসছে মিলার লোকজন। তাদের বিচারের দাবিতে আমরা রাস্তায় নেমেছি।

এইড ফর মেনের যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম নাদিম বলেন, হামলার ১০ দিন পার হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। যা চরম হতাশাজনক। সানজারি শুধু পুরুষ হওয়ার কারণে সুষ্ঠ বিচার পাচ্ছেন না।

গত ৫ জুন সংগীতশিল্পী মিলার বিরুদ্ধে অ্যাসিড হামলার অভিযোগে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মিলার সাবেক স্বামী পাইলট এস এম পারভেজ সানজারির বাবা এস এম নাসির উদ্দিন এই মামলা করেন। মামলায় মিলা ছাড়াও তার সহকারী জন পিটার হাওলাদার কিমকে আসামি করা হয়। অ্যাসিড অপরাধ দমন আইনের ৫ (খ) ৭ ধারায় মামলা করা হয় বলে জানান উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা।

মামলার এজহারে বলা হয়, গত ২ জুন রাত ৮টার দিকে উত্তরায় তিন নম্বর সেক্টর এলাকার ৭/বি সড়কে পারভেজের গায়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করা হয়। তখন মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন পারভেজ।

ঘটনার পর আহত পারভেজ বলেন, বিয়ে বিচ্ছেদের পর থেকেই বিভিন্ন সময় তাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। মিলার সহকারী জন পিটার হাওলাদার কিম তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করেছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট সূত্রে জানা যায়, অ্যাসিডে পারভেজের শরীরের ৮ থেকে ১০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

২০১৭ সালে বৈমানিক পারভেজ সানজারিকে বিয়ে করেন মিলা। বছরখানেক আগে বিয়ে বিচ্ছেদ হয় তাদের। এরপর থেকে নানা আলোচনায় আসেন মিলা ও পারভেজ। দুজনই একে অপরের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করতে থাকেন। পারভেজের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও দেশদ্রোহী কাজের সঙ্গে লিপ্ত থাকার অভিযোগ আনেন মিলা।

অমৃতবাজার/পিকে