ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ | ১১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পরী-তামিমের সম্পর্কে বিচ্ছেদের সুর


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০২:৪১ পিএম, ১২ জুন ২০১৯, বুধবার
পরী-তামিমের সম্পর্কে বিচ্ছেদের সুর

চিত্রনায়িকা পরীমনি। তার দীর্ঘ দিনের বন্ধু ও প্রেমিক সাংবাদিক তামিম হাসান। নতুন করে তাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। দুজনের প্রেম ও সম্পর্কের খেলা সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল। বিয়ের আগে থেকেই সম্পর্কের বিষয়ে ওপেন সিক্রেট ছিলেন দুজন। সব সময়ই পরী ও তামিমকে দেখা গেছে এক সঙ্গে। বিশেষ করে পরীমনির ফেসবুক ওয়ালে। প্রায়ই দুজনার অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশ করেছেন নায়িকা। তখন থেকেই বোঝা গেছে তাদের মধ্যে রয়েছে গভীর সম্পর্ক। দীর্ঘ দিনের প্রেমের পর গত ১৪ এপ্রিল তাদের বাগদান সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ছিল বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। কিন্তু এরই মধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে বিচ্ছেদের খবর।

কথা ছিল সামনের যে কোনো ১৪ এপ্রিল তাদের বিয়ে হবে। তেমনটিই জানিয়েছিলেন পরীমনি। কিন্তু তার আগেই বেজে উঠলো ভাঙনের সুর।

শোনা যাচ্ছে, তাদের সম্পর্ক ভেঙে গেছে। পরীমনির ফেসবুকেও আর দেখা যাচ্ছে না তামিমকে। কয়েক মাস থেকে তামিমের সঙ্গে নতুন কোনো ছবিও পোস্ট করেননি নায়িকা।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বাগদানের আংটিও নাকি খুলে রেখেছেন পরীমনি।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে পরী বলেন, ‘বাগদানের পরের দিনই আংটি খুলে রেখেছি। এতো ভারী আংটি কি সবসময় পরে থাকা যায়? আর ফেসবুকে ছবি না দেওয়ার ব্যাপারটি হলো আমি কাজকে সামনে আনতে চাই, বয়ফ্রেন্ডের ছবি নয়। আমার যা করা উচিত বলে মনে করছি, আমি তাই করার চেষ্টা করছি।’

যদিও বাগদান ভেঙে যাওয়ার ব্যাপারে সরাসরি মুখ খোলেননি পরীমনি।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি একতরফাভাবে বলে কোনো লাভ নেই। সময় হলে সবকিছুই জানবেন সবাই।’

পরীমনি আরও বলেন, ‘আমি বাগদানের সময় ঘোষণা দেয়া তারিখ অনুযায়ী আগামী কোনো এক বছরের ১৪ এপ্রিল বিয়ে করবো বলে ভেবেছিলাম। কিন্তু এটা কবে হবে তা আমি নিজেও বলতে পারছি না। আপাতত কাজ নিয়ে থাকতে চাই।’

পরী অভিযোগ করে আরও বলেন, ‘আমার কাজকে কেউ যদি অসম্মান করে, সেখানে আমি একচুল আপস করব না।’

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে তামিম হাসান বলেন, ‘আমাদের মধ্যে মান-অভিমান চলছে, এটা ঠিক আছে। আমিও এটা জানি। যেহেতু আমাদের এখনো বিয়ে হয়নি, এর মধ্যে যদি সিদ্ধান্তটা এমন হয়, তবে হতে পারে। ওর প্রতি আমার কোনো অভিযোগ নেই। এই বিষয়ে পরীর যেকোনো সিদ্ধান্তে আমার সম্মান ও সমর্থন দুটোই আছে।’

অমৃতবাজার/পিকে