ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নারী নির্মাতাদের সেরা ৭টি চলচ্চিত্র


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৭:১১ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার
নারী নির্মাতাদের সেরা ৭টি চলচ্চিত্র

এই সাতটি চলচ্চিত্রের নির্মাতা কেবল নারী নন, তাদের নির্মিত চলচ্চিত্রে নারীরাই রয়েছেন কেন্দ্রীয় ভূমিকায়৷ জেনে নিন সেই সাতটি ছায়াছবির কথা৷

ওয়ান্ডার ওম্যান: ২০১৭ সালে ইসরায়েলি অভিনেত্রী গাল গ্যাডট রাতারাতি আন্তর্জাতিক খ্যাতি পান ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্র ‘ওয়ান্ডার ওম্যান’-এ অভিনয় করে৷ হলিউডে কোনও নারী চলচ্চিত্র নির্মাতার এটাই প্রথম কোনও সুপারহিরোকে নিয়ে ছবি নির্মাণ। এই চলচ্চিত্রটি বক্সঅফিসে ব্যাপক সাফল্য এনে দেয়। পাশাপাশি সফল চলচ্চিত্র নির্মাতার তকমা জোটে প্যাটি জেনকিনসের নামের পাশে।

সাফরাজেট: ২০১৮ সালে জার্মানিতে উদযাপন করা হচ্ছে নারীদের ভোটাধিকারের শতবর্ষ। ব্রিটেনে নারী অধিকার কর্মীরা নারীদের অধিকার আদায়ের জন্য বহুবার রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেছেন। কখনও কখনও তা সংঘর্ষে রূপ নিয়েছে। ২০১৫ সালে নির্মিত ‘সাফরাজেট চলচ্চিত্রে’ এই বিষয়গুলো ফুটে উঠেছে৷ এর পরিচালনায় ছিলেন সারাহ গ্যাভরন৷

মাসট্যাঙ: কুর্দিস-ফরাসি পরিচালক ডেনিজ গামজে এরগুভেঁ-র পরিচালিত ‘মাসট্যাং’ ছবিতে মূলত পুরুষ অধ্যুষিত বিশ্বে পাঁচ বোন কীভাবে নির্যাতিত হয় সেই কাহিনি ফুটে উঠেছে। তুরস্কের ছোট একটি গ্রাম থেকে পিতৃতান্ত্রিক সমাজের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে তারা। স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়ানো মাসট্যাঙ ঘোড়া তখন তরুণী বিদ্রোহীদের স্বাধীনতার প্রতীক হয়ে ওঠে।

বেন্ড ইট লাইক বেকহ্যাম: ব্রিটিশ চলচ্চিত্র ‘বেন্ড ইট লাইক বেকহ্যাম’ ২০০২ সালে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ব্যাপক সাফল্য পায়। কেনিয়ায় জন্ম নেওয়া ইংলিশ পরিচালক গুরিন্দর চাড্ডা এর পরিচালক। মূলত তিনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত। যেখানে তিনি এক কমবয়সি নারী ফুটবলারের গল্প বলেছেন, যে সমাজের সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে লন্ডনের ফুটবল লিগে নিজের জায়গা করে নেয়।

হ্যানা আর্নড: ২০১২ সালে এই চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেন জার্মান পরিচালক মার্গারেটা ফন ট্রোটা।

রাফিকি: কেনিয়ার পরিচালক ওয়ানুরি কাহিয়ু-র পরিচালিত এই চলচ্চিত্রের কাহিনি গড়ে উঠেছে দুই নারীর ভালোবাসার সম্পর্ককে ঘিরে। কান চলচ্চিত্র উৎসবে ছবিটি আমন্ত্রণ পেয়েছিল৷ তবে নিজ দেশে এর জন্য কঠোর সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়েছে পরিচালককে৷ কেননা সেদেশে সমকামিতা নিষিদ্ধ৷ তাই স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এটা সেখানে মুক্তি দেওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল৷

দ্য পিয়ানো: ১৯৯৩ সালে নির্মিত এই চলচ্চিত্রে অসাধারণ কিছু চিত্র ধারণ করা হয়েছে৷ বধির পিয়ানোবাদক অ্যাডা ম্যাকগ্র্যাথের এই কাহিনি কান চলচ্চিত্র উৎসবে পরিচালককে পাম ডি’অর এনে দেয়৷ নিউজিল্যান্ডের পরিচালক জেন ক্যাম্পিয়ন এখন পর্যন্ত বিশ্বের একমাত্র নারী পরিচালক, যিনি এই সম্মানজনক পুরস্কার অর্জন করেছেন৷ এছাড়া এই চলচ্চিত্রটি তিনটি ক্যাটাগরিতে অস্কার জিতেছিল৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে

অমৃতবাজার/শাওন