ঢাকা, বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শাকিব ছাড়াই পথ হাঁটছেন অপু!


আকাশ নিবির

প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৪:৩১ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বুধবার
শাকিব ছাড়াই পথ হাঁটছেন অপু!

সর্বোচ্চ জুটি বেঁধে ব্যবসা সফল ছবি উপহার দেওয়া জুটি হলো শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে নজির নেই। কিন্ত তা মাঝপথে একটা দমকা হাওয়া এসে এই জুটিকে দুমড়ে মুচড়ে দিয়েছে। এমনকি তাদের মধ্যে গোপনে বিয়ে, সংসার, বাচ্চা ও অশুভ কিছু বার্তা এসে সাজানো সংসারসহ তাদের মধ্যে একটি বিশাল ফাঁরাক তৈরি করে দিয়েছে। যা কিনা একজন আরেকজনের কথা পর্যন্ত শুনতে নারাজ। সময় তো আর কারো অপেক্ষায় থাকে না, কথাটি যেমন সত্য। তেমন সত্য শাকিব খান ছাড়া অপু বিশ্বাস।

মূলত বিয়ে, সংসার, বাচ্চা নিয়ে সংসার ভাঙার পরও দর্শক, পরিচালকসহ প্রযোজকরাও চাইছে এই জুটির সংসার আবার নতুন করে মিল বন্ধনে আবদ্ধ হোক। কিন্তু তাদের সেই প্রত্যাশা পূরণ হবার নয়। এর পিছনে আরেক চিত্রনায়িকা বুবলির প্রভাব রয়েছে বলেই সিনেমাপাড়ায় অধিকাংশের বিশ্বাস। 

শাকিব খান যখন বাংলাদেশের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ জুটি ভেঙে অন্যদিকে মোড় নিয়েছেন তখন আর কি বা করার আছে অপু বিশ্বাসের। অনেক চেষ্টা চালিয়েও যখন অপু বিশ্বাস কিছু করতে পারলেন না। ঠিক তখনই নিজের সিদ্ধান্তে সে এগিয়ে চলতে শুরু করা তার। অপু বিশ্বাসের প্রথম কাজ ছিল ডিএ তায়েব অভিনীত ও বদিউল আলম খোকনের ‘কাঙ্গাল’ ছবিতে। পরে সেটি নিয়ে শাকিব খান চটে যাওয়ার কারণে সেই ছবিও ছেড়ে দেন অপু বিশ্বাস। কিন্তু তাতেও কোন কাজ হয়নি অপু বিশ্বাসের। পরে সব ভুলে নিজের মত কাজ শুরু করেন তিনি।

প্রথমে ‘সবুজ ছাড়া আবাসন প্রকল্প’ ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হন ও একটি বিজ্ঞাপন করেন। এরপর চ্যানেল আইয়ের প্রযোজনায় ‘কানাগলি’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধসহ চায়না-বাংলাদেশের একটি কোম্পানি ‘লিংকাস’ এর ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হন অপু বিশ্বাস। এরপর নিজেকে পুরোদমে ক্যামেরার সামনে ফেরাতে প্রস্তুতি নিয়ে কাজ শুরু করেন তিনি। তারপর বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ও দেবাশিষ বিশ্বাসের ‘শশুরবাড়ী জিন্দাবাদ-২’ নামের বাপ্পী চৌধুরীর বিপরীতে চুক্তিবদ্ধ হন তিনি। সম্প্রতি চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকের বিপরীতে ‘ওপারে চন্দ্রাবতী’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হন। ছবিতে পরীমনির অভিনয় করার কথা থাকলেও তার স্থানে অভিনয় করতে যাচ্ছেন অপু বিশ্বাসই। ইতোমধ্যে ছবিতে চুক্তি সাক্ষর করেছেন। ছবিটির পরিচালনা করবেন রফিক সিকদার।

 

অপু বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন। অপু বলেন, হ্যাঁ ছবিটি আমি করছি। যদিও একটু সময় নিতে চাচ্ছিলাম কিন্তু পরিচালক যেহেতু বারবার বললেন সেহেতু আমি চুক্তি সাক্ষর করেছি। গল্প শোনার পর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আসলে আমি পুরোদমে অভিনয়ে ফিরতে চাই।

একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, তার পাইপ লাইনে রয়েছে আরো দশটির মত চলচ্চিত্র। এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অতিথি হয়েও থেমে নেই তার নতুন পথ চলা। তিনি আরও জানায়, সব কিছু ভুলে গিয়ে অপু বিশ্বাস নিজের মত করে কাজ করাটা হবে একদম বুদ্ধিমানের কাজ। কেননা বাংলাদেশে শাকিব খানের মত অপু বিশ্বাসেরও আছে বেশ জনপ্রিয়তা।

সুপারস্টার শাকিব খান এতো বছরের প্রেম-ভালোবাসা, বিয়ে-সংসার ভেঙে অন্যদিকে মোড় নিতে পারে। তাহলে কোন একদিন পরের কাহিনীচিত্র একই হতে পারে বলে অনেকেই মন্তব্য। তবে সেটা হবে শুধু দিন-ক্ষণের অপেক্ষা।

অমৃতবাজার/নিবির/মাসুদ