ঢাকা, রোববার, ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ২১ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ধামরাইয়ে চার ইটভাটায় ১৫ লাখ টাকা জরিমানা


সাভার প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:০৩ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার
ধামরাইয়ে চার ইটভাটায় ১৫ লাখ টাকা জরিমানা ছবি-অমৃতবাজার ।

ঢাকার ধামরাইয়ে অবৈধ গড়ে ওঠা চারটি ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ইটভাটা গুলোর বেশির ভাগ অংশ।

গতকাল সোমবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলার ডাউটিয়া, বাথুলি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজিদ আহমেদ।এসময় যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর জানায়, রাজধানীর পাশে ধামরাইয়ে বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটায় দীর্ঘদিন ধরে ইট পোড়ানো হচ্ছে। পরিবেশ দূষণ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকাসহ নানা অভিযোগে আজ এসব ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এতে ডাউটিয়া এলাকার প্রিয়াংকা ব্রিকসকে ৬ লাখ, বাথুলির জিংক শুয়াং ব্যাটারি স্টোরেজে ১ লাখ ২০ হাজার, লাকী ব্রিকসকে ৬ লাখ, আরগাছ মেটালকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় জরিমানার টাকা নগদ আদায় করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী ২/৩ ফসলি আবাদি কৃষি জমি, আবাসিক এলাকা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট বাজার থেকে কমপক্ষে এক কিলোমিটার এবং গ্রামীন বা ইউনিয়ন পরিষদ রাস্তা থেকে অন্তত অর্ধ কিলোমিটারের মধ্যে ইটভাটা স্থাপন করা যাবে না। অথচ রাজধানী ঢাকার অদূরে ধামরাইয়েএ ধরণের নিয়ম ভঙ্গ করে স্থাপন করা হয়েছে বহু ইট ভাটা।

এসব ইটের ভাটার মালিক পূর্বে নানা কৌশলে ছাড়পত্র পেলেও চলতি বছর পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে কোন প্রকার ছাড়পত্র পায়নি। চলতি বছর ছাড়পত্র না পেলেও যথারীতি তাদের ভাটায় ইট তৈরীর কাজ চলছিল।

পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী তামজিদ আহমেদ জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকার চারপাশের বিভিন্ন জেলার অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান চলছে। এর অংশ হিসেবে আজ ধামরাইয়ে অভিযান চালিয়ে অবৈধ এসব ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আগে ইটভাটার আংশিক ভেঙে দিয়ে বেশি টাকা জরিমানা করা হতো। কিন্তু ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে কম জরিমানা করে ভাটার কার্যক্রম একেবারেই বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

অমৃতবাজার/এসএস