ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০ | ১৭ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কালকিনিতে মুক্তিযোদ্ধার নাতনিকে ধর্ষণ


মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:৪২ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৫:৪৩ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
কালকিনিতে মুক্তিযোদ্ধার নাতনিকে ধর্ষণ ছবিটি প্রতীকী ব্যবহার করা হয়ছে।

মাদারীপুরের কালকিনিতে এক মুক্তিযোদ্ধার ১৩ বছরের স্কুল পড়ুয়া নাতনিকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় আদালতে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। আজ মঙ্গলবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে থানা পুলিশ।

পরিবার ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ডাসার থানার গোপালপুর এলাকার পশ্চিম বনগ্রাম গ্রামের এক অসহায় মুক্তিযোদ্ধার স্কুল পড়ুয়া নাতনি গত শুক্রবার রাতে পাশের ঘরে টিভি দেখতে যায়। পরে ফেরার পথে ওত পেতে থাকা একই গ্রামের হারুন শরিফের বখাটে ছেলে কালাম ওরফে কালু (২২) ওই নাতনির মুখ চেপে ধরে পাসের একটি বাগানে নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এ ঘটনা কাউকে জানাতে নিষেধ করে ওই কালু। কিন্তু ভুক্তভোগীর বাবা, মা বিষয়টি জানতে পেরে মাদারীপুর নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে তার বাবা বাদী হয়ে কালাম ওরফে কালুকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ভিকটিমের মা কান্নাজড়িত কণ্ঠে অভিযোগ করে বলেন, আমি ও আমার স্বামী সিলেট চাকরি করি। এ সুযোগে কালাম ওরফে কালু আমার মেয়েকে রাতে একা পেয়ে ধর্ষণ করেছে। তাই আমার স্বামী তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে।

ওই মুক্তিযোদ্ধা বলেন, আমার নাতনি ষষ্ঠ শ্রেণিতে পরে। সে এখনও কিছু বোঝেনা। কিন্তু কালু আমার নাতিকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। আমি তার সঠিক বিচার চাই।

অভিযুক্ত কালাম ওরফে কালুর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে এলাকায় পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি আবদুল ওহাব বলেন, এ ধর্ষণের ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। এবং ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অমৃতবাজার/এসএস