ঢাকা, বুধবার, ০৩ জুন ২০২০ | ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

যা বললেন ‘বন্ধ কেবিন থেকে আটক’ সেই ছাত্রী-অধ্যক্ষ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:৪৭ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার | আপডেট: ০১:৪৮ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার
যা বললেন ‘বন্ধ কেবিন থেকে আটক’ সেই ছাত্রী-অধ্যক্ষ

জামালপুরে ট্রেনের একটি বন্ধ কেবিন থেকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করার দাবি করেছে জিআরপি পুলিশ। তবে আটক ওই ছাত্রী ও অধ্যক্ষে দাবি তাদেরকে ফাঁসানো হচ্ছে। ওই ছাত্রী বলেন, ট্রেনে শিক্ষকের সঙ্গে দেখা হওয়ায় তার সঙ্গে যাচ্ছিলেন। আর অধ্যক্ষ বলছেন, ট্রেন ছাড়ার পাঁচ থেকে সাত মিনিটের মধ্যে তাদের আটক করা হয়।

রোববার দুপুরে জামালপুর কোর্ট স্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আটকের পর বিকেল ৪টার দিকে তাদেরকে জামালপুর রেলওয়ে থানায় আনা হয়।

সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ওই ছাত্রী বলেন, ‘ওই অধ্যক্ষ আমার একজন শিক্ষক। তার সঙ্গে আমার আর কোনো সর্ম্পক নেই। শিক্ষক হিসেবে ট্রেনে দেখা হওয়ায় তার ওই কেবিনে একসঙ্গে যাচ্ছিলাম। তাই এ বিষয়ে আমার কোনো অভিযোগও নেই।’

একই সময় অধ্যক্ষ বলেন, ‘ওই কেবিনে আরও দুজন যুবক বসে ছিলেন। কিন্তু আমরা যাওয়ার পর কেবিন থেকে তারা চলে যান। তাই কেবিনের দরজাটি লাগনো ছিল। কিন্তু কিছুক্ষণ পর দুজন যুবক এসে কেবিনের দরজায় নক করছিলেন। পুরো ঘটনাটি ট্রেন ছাড়ার মাত্র পাঁচ-সাত মিটিনের মাথায় ঘটে। সে আমার একজন প্রাক্তন ছাত্রী। দেখা হওয়ায় তাঁকে নিয়ে যাচ্ছিলাম। পাঁচ-সাত মিনিটের মধ্যে কি এমন খারাপ কাজ করা যায়। আমার বিরুদ্ধে হয়তো কেউ ষড়যন্ত্র করেছে। যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে, এসবের কোনো ভিত্তি নেই।’

ওসি তাপস বলেন, ‘ছাত্রীটির পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগও দেওয়া হয়নি। তারপরও ট্রেনের মধ্যে জনসমক্ষে অনৈতিক কার্যকলাপে যাত্রীদের বিব্রত করার অপরাধের অভিযোগে রেলওয়ে আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

অমৃতবাজার/আরইউ