ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শুভ এখন লতিরাজ, বেগুন চাষে ভাগ্য খুলেছে সুরেশ্বরের


খুলনা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার | আপডেট: ০৮:০৩ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার
শুভ এখন লতিরাজ, বেগুন চাষে ভাগ্য খুলেছে সুরেশ্বরের

কৃষিতে দুজন তরুণ উদ্যোক্তা।  একজন মোঃ মনিরুজ্জামান শুভ এবং অপর জন সুরেশ্বর মল্লিক।  শুভ ৮ বছর বয়সে তার পিতাকে হারান, মা অনেক কষ্ট করে তাকে বড় করে তোলেন।  আজ সে মাষ্টার্সের ছাত্র,  কষ্টকে জয় করে কিভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া যায় এটাই তার ব্রত। চাকরি নামক সোনার হরিণের পিছনে না ঘুরে কিভাবে স্বাবলম্বী হওয়া যায় তার জন্য সে নিরন্তর পথ পাড়ি দিয়ে চলেছে।  সে কৃষি বিভাগের পরামর্শে প্রথমবারের মত ৪ বিঘা জমিতে লতিরাজ কচু চাষ করে সফল হয়েছে।  এবছর ১৪ বিঘা জমিতে লতিরাজ কচুর চাষ করা হবে, চারা ও তৈরি হয়ে গেছে। শুভ এখন লতিরাজ, সে স্বাবলম্বী।  

অপরদিকে একজন সুরেশ্বর, যে জন্মের পরপরই তার পিতাকে হারান, মা লোকের বাড়িতে কাজ করে তাকে বড় করে তোলেন।  অর্থাভাবে তার বেশিদুর পড়ালেখা হয়নি। ৪র্থ শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় সংসারের হাল ধরেন এবং কৃষিকে পেশা হিসাবে বেছে নেন। প্রথমে ধান, গম, পাট চাষ করে মোটামুটি জীবিকা নির্বাহ করেন। পরবর্তীতে সবজি চাষে ব্রতি হন। আজ সে সফল সবজি চাষী। প্রতিবছর বেগুন চাষ করে ১৫ থেকে ১৬ লাখ টাকা লাভ করেন।  তিনবার জাতীয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু কৃষি পদক ও সবজি পুরস্কার পেয়েছেন।

অমৃতবাজার/এমএএন