ঢাকা, রোববার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০ | ১৩ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আশুলিয়ায় নতুন জঙ্গী আস্তানা, বিস্ফোরকসহ নারী আটক


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৪:৪৮ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
আশুলিয়ায় নতুন জঙ্গী আস্তানা, বিস্ফোরকসহ নারী আটক পুলিশের অভিযানকালে আশুলিয়ার সেই দোতলা বাড়িটি। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর উপকণ্ঠে আশুলিয়ার একটি দোতলা বাড়ি থেকে এক নারীকে সন্দেহভাজন জঙ্গি হিসেবে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকটি পেট্রোল বোমা এবং স্বয়ংক্রিয় আঘাতের জন্য ব্যবহারযোগ্য বিভিন্ন সরঞ্জামাদিও উদ্ধার করা হয়েছে । সোমবার সন্ধ্যায় রাত সাড়ে ৮টায় প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে সন্ধ্যার দিকে বিপুলসংখ্যক জঙ্গি ও গোলাবারুদ থাকার খবর পেয়ে উপজেলার গকুলনগর বাজার সংলগ্ন দুই তলা বাড়িটি ঘেরাও করে পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা। বাড়িটি আকতার হোসেন নামে একজন প্রবাসীর মালিকানাধীন। আটক নারীটি ১৫ দিন ধরে সেখানে ভাড়াটিয়া হিসেবে থেকে আসছিলেন।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, আটক বাড়ির ভাড়াটিয়ার নাম শায়লা শারমিন। তার স্বামী তানভীর পলাতক রয়েছে।

পুলিশ জানায়, এই বাড়িতে জঙ্গি সদস্য ও বিস্ফোরক দ্রব্য গোলাবারুদ রয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বাড়িটি ঘেরাও করে পুলিশ ও গোয়েন্দা সদস্যরা । পরে রাত ৮টায় অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। এরপর ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপির ৫নং ওয়ার্ড সদস্য লেহাজ মেম্বার বলেন, বাড়িতে জঙ্গী রয়েছে এমন খবরের ভিত্তিতে তিনি ঘটনাস্থলে আসেন। এই বাড়িটি ১৫ দিন আগে ভাড়া দেওয়া হয়। বাড়ির মালিক আকতার হোসেন সৌদিতে থাকেন। তবে, তার স্ত্রী শিরিন আক্তারের নামে বাড়িতে নামফলক রয়েছে।

পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার জানান, অভিযানে শায়লা শারমিন নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। তার স্বামী পলাতক তানভীর জাবি শিক্ষার্থী। তারা উভয়েই নতুন জেএমবির সদস্য।

তিনি আরও জানান, এখান থেকে কিছু পেট্রোল বোমা, ছুড়ি, স্ক্রু ড্রাইভার, খেলনা পিস্তল, হার্ড ডিস্ক ও স্বয়ংক্রিয় আঘাতের জন্য ব্যবহারযোগ্য শক্তিশালী বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তাদের কোন নাশকতার পরিকল্পনা ছিল কি না তা পরবর্তীতে জানা যাবে।

এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ও জেলা পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

অমৃতবাজার/এসএইচএম