ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০ | ২৪ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রতিবেশীর ঘরে শিশুর বস্তাবন্দি লাশ


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১০:১৫ এএম, ৩১ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রতিবেশীর ঘরে শিশুর বস্তাবন্দি লাশ

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় আশিক হাসান (৮) নামে এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।


বুধবার দুপুরে নিখোঁজের পর সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার কৃষ্ণপুর যমুনাপাড়ায় প্রতিবেশীর বাড়ির একটি ঘর থেকে তার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

শেরপুর থানার ওসি হুমায়ুন কবীর এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহত আশিক হাসান একই গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলামের ছেলে। সে স্থানীয় শেরুয়া আদর্শ স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

এ ঘটনায় এক কিশোর তার বাবা, মামা ও ভাইকে আটক করা হয়েছে।

জানা গেছে, দুপুর থেকে বাড়ির পার্শ্বে খেলাধুলা করা অবস্থায় নিখোঁজ হয় শিশু আশিক। এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে সন্ধান করেও আশিকের কোনো খোঁজ পায়নি পরিবারের লোকজন। সন্ধ্যার পর প্রতিবেশী সুরুজ্জামানের বাড়ির লোকজনের আচরণ প্রতিবেশীদের কাছে সন্দেহ হয়।

এতে আশিকের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী তার বাড়িতে গিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করলে খাটের নিচে বস্তাবন্দি আশিকের লাশ উদ্ধার করে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চার ঘণ্টা পূর্বে মৃত্যু হয়েছে বলে জানান।

এ সময় লোকজন ওই বাড়ি ঘেরাও করে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে সুরুজ্জামান (৫০) তার স্ত্রী পারভীন বেগম (৪৫) ছেলে সোহাগ (২৬) এবং অপর ছেলে তুহিনকে (১৩) আটক করে।

স্থানীয়রা জানান, শিশুটির হাত-পা বাঁধা ছিল এবং মাথায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। সুরুজ্জামানের পরিবারের লোকজন লাশ বস্তায় ভরে গুম করার চেষ্টার সময় তাদের আচরণ প্রতিবেশীদের সন্দেহ হলে ঘরে গিয়ে বস্তাবন্দি লাশ দেখতে পায়।

শেরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম জানান, খেলা নিয়ে ঝগড়া হওয়ায় সিয়াম ভারী কিছু দিয়ে আশিকের মাথায় আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়। এরপর লাশ গুম করতে বাড়িতে নিয়ে বস্তায় ভরে ঘরে রাখা হয়েছিল। এ ব্যাপারে তদন্ত ও আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

অমৃতবাজার/ কেএসএস