ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জের হাওরে নৌকাডুবি, ৮ মরদেহ উদ্ধার


অমৃতবাজার রিপোর্ট 

প্রকাশিত: ১০:১১ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার
সুনামগঞ্জের হাওরে নৌকাডুবি, ৮ মরদেহ উদ্ধার

 

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কালিয়াকুটা হাওরে নৌকাডুবির ঘটনায় চার শিশুসহ এখন পর্যন্ত আট মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন আরও দুইজন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার দুর্গম রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রাম সংলগ্ন হাওরে নৌকাডুবির পরপরই চার শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর আজ বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে আরও চারটি লাশ উদ্ধার করা হয়।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম নজরুল ইসলাম।

নিহতদের মধ্যে ৪ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলো- মাছিমপুর গ্রামের বাবুলের ছেলে শামীম (২), বদরুল মিয়ার ছেলে আবির (৩), নোয়ারচর গ্রামের আফজাল মিয়ার ২ বছর বয়সী শিশুপুত্র ও পেরুয়া গ্রামের ফিরোজের ২ বছরের বয়সী শিশুপুত্র। তবে বুধবার ভোরে উদ্ধারকৃতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রাম থেকে ইঞ্জিনচালিত একটি নৌকা চরনারচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামে যাচ্ছিল। নৌকায় ৩১ জন যাত্রী ছিলেন। কিন্তু কালিয়াগুটা হাওরের আইনুল বিলে নৌকাটি ঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায়। এতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়রা চেষ্টা চালিয়ে লাশ উদ্ধার করে। যাত্রীদের মধ্যে ৭ জন সাঁতরে তীরে উঠেতে সক্ষম হয়। বাকিদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

রফিনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান রেজওয়ান খান বলেন, ‘নৌকা ডুবে যাওয়ার পর সাতজন সাঁতরে তীরে উঠেছেন। চার শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো ২০ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

এ বিষয়ে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিজানুর রহমান বলেন,  ‘নৌকাডুবিতে চারজনের মারা যাওয়ার খবর পেয়েছি। ঘটনাটি দুর্গম হাওরে ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে।’

অমৃতবাজার/এএস