ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৭ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পাবনায় শিশু নিখোঁজের ১৮ দিন পর মরদেহ উদ্ধার, আটক ১


পাবনা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৯:৩৪ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৯:৩৫ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার
পাবনায় শিশু নিখোঁজের ১৮ দিন পর মরদেহ উদ্ধার, আটক ১

 

পাবনার আমিনপুরে নিখোঁজের ১৮ দিন পর সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে সাত বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত শিশুর নাম সামিউল ইসলাম রাহী। সে বেড়া উপজেলার রুপপুর ইউনিয়নের কালিকাবাড়ি গ্রামের মো: নুরুজ্জামানের ছেলে।

এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে মিরাজুল ইসলাম মিরাজ (২৬) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটক মিরাজ একই গ্রামের মালেক শেখের ছেলে।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোমিনুল ইসলাম জানান, আমিনপুর থানার পদ্মা বিধৌত চরাঞ্চল কালিকাবাড়ি গ্রামের শিশু রাহী গত ১ আগস্ট সকালে প্রতিবেশি দুই শিশুর সাথে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালেও নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দিয়ে সহায়তা করতে পারছিলনা।

এরই এক পর্যায়ে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের মিরাজুল ইসলাম নামের এক যুবককে সোমবার দুপুরে আটক করে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী সোমবার বিকেল চারটার দিকে চরাঞ্চলের কাঁশবনের ভেতর থেকে শিশু রাহীর মাথার খুলিসহ হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়।

হত্যার কারণ হিসেবে ওসি মোমিনুল জানান, প্রাথমিক ধারণা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মিরাজুল ও তার বন্ধু একই গ্রামের আয়নাল খাঁ’র ছেলে বেলাল হোসেন শিশু রাহীকে ১ আগস্ট ধরে নিয়ে তাদের বাড়িতে লুকিয়ে রাখে। একইদিন রাতে তারা শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মরদেহ বাড়ি থেকে ৫শ’ গজ দূরে চরাঞ্চলের কাঁশবনের ভেতর পানির নিচে ডুবিয়ে রেখেছিল।

এ ঘটনায় নিহত শিশুর বাবা নুরুজ্জামান বাদি হয়ে মিরাজ ও বেলাল’র নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৭ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পলাতক বেলালকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান ওসি।

অমৃতবাজার/এএস