ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অপহরণের ৯ দিনেও উদ্ধার হয়নি গৃহবধূ বীথি


নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ২৫ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার
অপহরণের ৯ দিনেও উদ্ধার হয়নি গৃহবধূ বীথি

নোয়াখালীর চাটখিলে বীথি আক্তার (১৯) নামের এক গৃহবধূকে অপহরণের ৯ দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। ১৭ জুন সকাল ১১টার দিকে উপজেলার সোমপাড়া বাজার এলাকা থেকে ওই গৃহবধূ অপহরণ হন।

তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে ওইদিন সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে বীথিকে না পেয়ে তার বাবা বেলাল হোসেন ও মা মনি বেগম রাতে চাটখিল থানায় অপহরণ মামলা করতে যান। পরিবারের অভিযোগ, এ সময় অপহরণ মামলা না নিয়ে বিষয়টি নিখোঁজ ডায়েরি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে থানা পুলিশ। বীথি আক্তার চাটখিল উপজেলার পাঁচঘরিয়া গ্রামের ভারদার বাড়ির বেলাল হোসেনের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চাটখিল উপজেলার পাঁচঘরিয়া গ্রামের ভারদার বাড়ির বেলাল হোসেনের মেয়ে বীথি আক্তারের সঙ্গে ৮ মাস আগে পার্শ্ববর্তী লক্ষ্মীপুর জেলা সদরের বদরপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ির প্রবাসী সাফায়েত উল্যার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। ১৭ জুন বীথি তার বাবার বাড়ি থেকে নানার বাড়ি চাটখিলের শিবরামপুর ছৈয়াল বাড়িতে বেড়াতে যান। পরবর্তীতে বীথি নানার বাড়ির পাশে সোমপাড়া বাজারে গেলে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা অপরিচিত কয়েকজন যুবক তাকে জোরপূর্বক সিএনজিতে করে তুলে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে বীথির মা মনি বেগম জানান, মেয়েকে কোথাও না পেয়ে থানায় গেলে ওসি মামলা না নিয়ে নিখোঁজ ডায়েরি করতে বাধ্য করেছেন। আর অপহরণের ২দিন পর আমার মেয়ে বীথি ফোন দিয়ে তাকে উদ্ধারের জন্য ব্যাপক কান্নাকাটি করেন। আমি আমার মেয়ে বীথি আক্তারকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি।

চাটখিল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বিষয়টি পরকীয়া সংক্রান্ত, অপহরণ নয়। আমরা মোবাইলের কল লিস্ট নিয়েছি। তারপরও আমরা তাকে উদ্ধার করে দেব।

অমৃতবাজার/আরএইচ