ঢাকা, সোমবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২০ | ১৪ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বেনাপোলে বাজার কমিটি গঠন, ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৫ পিএম, ২১ মে ২০১৯, মঙ্গলবার | আপডেট: ১২:০১ এএম, ২২ মে ২০১৯, বুধবার
বেনাপোলে বাজার কমিটি গঠন, ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ

কমিটির মেয়াদ থাকা সত্ত্বেও নতুন কমিটির ঘোষণা দেয়ায় যশোর বেনাপোলের ব্যবসায়ীদের মাঝে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।পাঁচ বছর মেয়াদী পুরাতন কমিটির মেয়াদ এখনও পাঁচ মাস থাকা সত্ত্বেও কেন নতুন কমিটির ঘোষণা করা হলো এ নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনা আলোচনা-সমালোচনা। জানা যায়, ছোট বড় ৯শ’ ব্যবসায়ীরা বেনাপোল বাজারে ব্যবসা করে আসছেন।

সূত্র জানায়, অগণতান্ত্রিক পন্থায় এ কমিটির ঘোষণা দিয়েছে বলে সাধারণ ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

সাধারণ ব্যবসায়ীরা বলেন, আমরা বাজারে যারা ব্যবসা করি; আজ তারা রাজনীতির শিকার হচ্ছে। আমরা যে যে দল করি না কেন তা বাজার কমিটির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা ঠিক হবে না। বাজারের পরিবেশ যাতে বিশৃঙ্খলা না হয় তার জন্য সকল প্রকৃত ব্যবসায়ীদের নিয়ে কমিটি গঠন করা উচিৎ। পুরাতন কমিটির মেয়াদ থাকা সত্ত্বেও নতুন করে এ ধরনের একটি কমিটি হয়েছে তা বাজারের অনেক ব্যবসায়ী জানে না। এটা স্কুল রক্ষা কমিটি হয়েছে। কারণ অনেকের স্কুল মার্কেটে দোকান রয়েছে। তারা নামে মাত্র স্কুল প্রতিষ্ঠানকে ভাড়া দিয়ে স্কুলের উন্নয়নের কথা না ভেবে নিজেদের স্বার্থ কুক্ষিগত করছে।

তারা আরো বলেন, ২০ মে যে কমিটির ঘোষণা দেয়া হয়েছে এর আহ্বায়ক কমিটি সম্প্রতি রাতের আঁধারে আজিজুর রহমান আজুকে আহ্বায়ক করে স্কুল কক্ষে বসে গঠন করা হয়। আর তারই প্রতিবাদে বেনাপোলে রহমত আলীকে আহ্বায়ক করে আর একটি কমিটি গঠন হয়েছিল। এরপর রহমত আলীর আহ্বায়ক কমিটির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে আজিজুর রহমান এর আহ্বায়ক কমিটি। তারপর থেকে আর দুইটি কমিটিকে নিয়ে কোনও তৎপরতা দেখা যায়নি।

বেনাপোল বাজারের প্রবীন ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বেনাপোল হাইস্কুল আমাদের সকলের সম্পদ। কিন্তু দুর্ভগ্যবশত যারা স্কুল মার্কেটের দোকান নাম মাত্র নিয়ে সামান্য ভাড়া দিয়ে যাচ্ছে তারা তাদের স্বার্থ হাসিল করার জন্য এই অবৈধ অগণতান্ত্রিক কমিটির সাথে জড়িয়ে পড়েছে। ৪০ বছর আগেও যে ভাড়া দিয়ে আসছে বর্তমানেও তারা একই ভাড়া দিয়ে আসছে। আর স্কুল মার্কেটের ওই দোকানের মালিকরা অন্য লোকের নিকট থেকে ৫ থেকে ১০ লাখ টাকা জামানত নিয়ে পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা ভাড়া দিচ্ছে। অথচ স্কুল প্রতিষ্ঠানকে মাত্র ৫০০-৬০০ টাকা তারা ভাড়া প্রদান করছে।

এদিকে বেনাপোল বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে জোর করে টাকা তুলে ইফতার পার্টি করার অভিযোগ উঠেছে। তারা অভিযোগ করছে, ইফতার করে নাম ফোঁটাবে নেতারা আমাদের নিকট থেকে কেন চাঁদা নিবে।

বাজারের একজন ব্যবসায়ী বলেন, তারেক রহমান চর দখল করার মতো অনেক কিছু দখল করে তা টিকিযে রাখতে পারে নাই। আজ সেই দখলবাজ তারেক দেশের বাইরে নির্বাসন মানতর জীবনযাপন করছে। আমার এ দীর্ঘ জীবনের শেষ প্রান্তে এসে আর কত কি দেখব। আজ যাদের নিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে তাদের মধ্যে বিএনপি জামাতের এবং তারেকের সেই প্রেতাত্মারা রয়েছে।

বেনাপোল পৌরসভার ইনস্পেক্টর এ বিষয় বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বাজারের দেখভাল এর দায়িত্ব পৌরসভার। কিন্তু পৌরসভার কোনও অনুমোদন ও আমাদের সাথে আলাপ না করে যে কমিটি তৈরি করেছে তা সম্পূর্ণ অনৈতিক ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আইন ধারা মোতাবেক সকল পৌরসভার হাটবাজার কমিটি মেয়র এর তত্ত্বাবধানে থাকার আইন রয়েছে।

অমৃতবাজার/এএস