ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বেনাপোল সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ১১ মহিলাসহ আটক-১৭


বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধি,

প্রকাশিত: ১২:৫০ পিএম, ১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার
বেনাপোল সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ১১ মহিলাসহ আটক-১৭

 

বেনাপোল গাতীপাড়া তেরঘর সীমান্তে বৃহস্পতিবার বিকালে অভিযান চালিয়ে ১১জন মহিলা ও ৬জন পুরুষ কে আটক করেছে দৌলতপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা। 

আটকরা সবাই চোরাকারবারী বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। তবে তারা ভারত থেকে আসার সময় তাদের কাছে কোন অবৈধ মালামাল না পাওয়ায বিজিবি তাদের অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে ১১সি ধারায় মামলা দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করেছে। 

এলাকাবাসী আরো জানান,ভারতের বনগাঁ থানার ভিতর অবস্থিত তেরঘর নামক এক গ্রাম বনগাঁ থেকে এ গ্রামে আসতে হলে সীমান্ত ঘেষা ইছামতি নদী পার হয়ে আসতে হয়। যার বাংলাদেশের দু-পাশে বেনাপোল পোর্ট থানার গাতীপাড়া ও দৌলতপুর গ্রাম অবস্থিত। দু-পাশে বিজিবি ২৪ ঘন্টা ডিউটি করে থাকেন। চোরাচালানীরা বিজিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে তেরঘরের ভিতরে গিয়ে মাদকদ্রব্য সহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে আসে। 

দৌলতপুর বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার মোজাম্মেল হোসেন জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি ১১জন মহিলা ও ৬ জন পুরুষ তেরঘর থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করে সীমান্তের পাশে অবস্থান করছে।এ সময় সেখানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। 

আটকদের বাড়ি গাতীপাড়া গ্রামে ও যশোর শংকরপুর এলাকায়। আটকরা হলো গাতীপাড়া গ্রামের ফজলুল রহমানের ছেলে রনি মিয়া(২২), আবদুস সাত্তারের ছেলে ফারুক হোসেন(৩৩, খলিল মন্ডলের ছেলে আহসান (৩৫), আবদুস সাত্তারের ছেলে মনিরুজজান (২৫), খোছতার আলীর ছেলে লালটু (২৫),মতিযার রহমানের ছেলে সোহেল (২৫), রেজাউল ইসলামের স্ত্রী মমতা (৪০), কালুর স্ত্রী আছমা (৩০), বড় আচড়া গ্রামের আব্দুল রশিদের স্ত্রী হাসিনা (৪৫),  যশোর শংকরপুর এলাকার বেলাল মিয়ার স্ত্রী পান্না (৩০), ইছাহক মিয়ার স্ত্রী চন্দনা (২০),  সিরাজ মিয়ার স্ত্রী শাহানাজ (৫০), আলমগীর হোসেনের স্ত্রী টুমপা (৩০), জহিরুল ইসলামের স্ত্রী শাহিদা(৬০), আসলামের স্ত্রী জোসনা (৩৬), ইদ্রিস আলীর স্ত্রী নুর জাহান(৫৫) ও যশোর শেখহাটি গ্রামের সরোয়ার হোসেনের স্ত্রী ফরিদা(৫৫)।

আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

অমৃতবাজার/রাসেল/এএস